যেকোনো মেয়েদের ইমপ্রেস করা বা গার্লফ্রেন্ডকে ইমপ্রেস করা টিপস

মেয়েদের ইমপ্রেস করার উপায় – গার্লফ্রেন্ড কে ইমপ্রেস করার উপায় -কিভাবে মেয়েদের impress করা যায়।

একটা মেয়েকে ইমপ্রেস করতে হলে আগে তার সম্পর্কে ভালো ভাবে সব কিছু জেনে নিবেন।। তার পছন্দ অপছন্দ কি রকম কথা বার্তা সে পছন্দ করে তার কাছের মানুষ গুলো কি টাইপের। সে কি টাইপের ছেলেদের পছন্দ করে বিস্তারিত। তাহলএ সেই মেয়েকে ইমপ্রেস করতে খুব সহজ হবে। নিচে আমরা কিছু দারুন টিপস শেয়ার করেছি যার মাধ্যমে যে কোন মেয়েকে ইমপ্রেস করতে পারবে আসা করি।

 

মেয়েদের ইমপ্রেস করার উপায় :প্রথম তার প্রশংসা করো তাকে বলো সে অনেক সুন্দর। তবে কখনও ভুল করে তাকে হট বলবে না যদিও সে অনেক চেনা পরিচিত কেউ হয়ে থাকে তাহলে দুই বলতে পারো তবে আমার মনে এই ধরণের কমপ্লিমেন্ট না দেওয়াই ভালো এতে তোমার সম্পর্কে তার মনে একটা খারাপ ইম্প্রেশন পড়তে পারে , কারোর প্রশংসা করার জন্যে অনেক ধরণের উপায় আছে হট বলে এটা প্রশংসা হয় না এই পয়েন্ট টি অবশই মাথায় রাখবে।

 

আস্তে আস্তে তার সাথে পরিচিতি বাড়াও ভালো ফ্রেন্ড হওয়ার চেষ্টা করো কারণ ফ্রেন্ড কে গার্লফ্রেন্ড বানানো এর থেকে সহোজ কিছু আর হয় না , যখন ভালো ফ্রেন্ড হয়ে যাবে তখন তার হাত ধরো ভালোবাসার সাথে তাকে ভরসা দেওয়ার চেষ্টা করো তাকে এটা বোঝানোর চেষ্টা করো তুমি তার অনেক খেয়াল রাখবে তাকে ভাবান যে তাকে তুমি ভালো বাসো। ভালোবাসা টা মুখে প্রকাশ করার থেকে কাজে প্রকাশ করা ভালোবাসাটা অনেক গভীর হয়ে থাকে আর এটা মেয়েরা অনেক ভালো ভাবে ফিল করতে পারে । আর কখনও বুঝতে দিবে না তুমি তাকে অন্য চোখে দেখছো তাকে সবসময় সম্মান করবে।

প্রতি দিন সকালে তাকে গুড মর্নিং কিংবা আর সাথে সুন্দর সুন্দর কবিতার লাইন আথবা ঘুম থেকে তুলে দেবার রোমান্টিক কিউট ভয়েস মেসেজ দিতে পাঠান । তাতে সে খুব ভালো করে বুঝতে পারবে যে তুমি তার প্রতি খুব টেক কেয়ারিং ।

তার সব কথাকে সব সময় মন দিয়ে শুনবে ,নিজেদের মধ্যে কথা বলার সময় তাকে বেশি করে কথা বলার সুযোগ দিবে তার নিজের বেপারে বলার জন্যে রিকুয়েস্ট করবে কারণ মেয়েরা নিজের বেপারে গল্প করতে অনেক ভালোবাসে , তোমাদের মধ্যে কোনো বিষয় নিয়ে কথা হওয়ার সময় যদি সে কোনো কথা ভুল বলে থাকে তবুও তার কথা কে সঠিক বলবে তার কথা ভুল বলে তাকে রাগলে হবে না , আর সব সময় তাকে সব দিক দিয়ে জিততে দিবে কথায় হোক কিংবা অন্য কোনো কাজে যেমন ধরে নাও – দুজনে কোনো একটা গেম খেলছো তোমার জিতে যাওয়ার চান্স বেশি তবুও নিজে ইচ্ছা করে তার কাছে হেরে যাবে দেখবে তুমি নিজে জিতে যতটা না খুশি হতে হতে সে জিতলে দেখবে তার অনেক খুশি হচ্ছে আর তার খুশি দেখে তুমিও অনেক খুশি হবে , আর যেদিন মেয়েটা নিজে থেকে বা বুঝে যাবে যে তাকে সব কাজে জেতানোর জন্যে নিজে হেরে গিয়েছো তখন তাকে তুমি ভালোবাসো সেটা আর বলতে হবে না সে নিজেই বলবে সে তোমাকে ভালোবাসে , আর নিজে হেরে গিয়ে মেয়েটাকে জিতিয়ে দিলে যে ভালোবাসা বাড়ে তার অনেক উদাহরণ অনেক সিনেমাতে আমরা পেয়েছি বাংলা সিনেমা সাথী ও হিন্দি সিনামে আশিকী ২ , এবার অনেকেই বলতে পারে যে ওই গুলো সিনামে হয় তাদেরকে বলতে চাই একদম না ভালোবাসার এই দিকটা বাস্তবেও একই কোনো কখনো নিজে হেরে গিয়ে জিতিয়ে দেখবে বুজতে পারবে।

বর্তমান সময়ে সবার ই প্রায় পিছনে লাভ লাইফ থেকেই থাকে সেটা ছেলে হোক কিংবা মেয়ে আর এই ক্ষেত্রে সব র মনে ঝড় বইসময় মনে রাখবে কোনো মেয়ের সাথে কথা বলার সময় কখনও তার পুর্বের ছেলে বন্ধুকে নিয়ে কথা শোনাবে না তাহলে তার পুরোনো কথা মনে পরে যেতে পারে আর তখন তার মন খারাপ হয়ে যাবে আর তখন তোমাদের কথা বলার বারোটা বেজে যাবে সো এই ভুলটা করবে না।

গার্লফ্রেন্ড কে ইমপ্রেস করার উপায়

মানুষ মানুষের জন্য,

পাখি আকাশের জন্য,

সবুজ প্রকৃতির জন্য,

ভালোবাসা সবার জন্য,

আর তুমি শুধু আমার জন্য !!

 

 

প্রেম মানে হৃদয়ের টান,

প্রেম মানে একটু অভিমান,

দুটি পাখির একটি নীড়,

একটি নদীর দুটি তীর,

দুইটি মনের একটি আশা,

 

 

খুঁজিনি কারো মন,

তোমার মন পাবো বলে !

ধরিনি কারো হাত,

তোমার হাত ধরবো বলে !

হাঁটিনি কারো সাথে,

তোমার সাথে হাটবো বলে।

বাসিনি কাউকে ভাল

তোমাকে ভালবাসবো বলে !!

 

একটু ভালবাসা দিবি ? যে ভালবাসায় থাকবে না কোন দুঃখ, থাকবে না না পাওয়ার যন্ত্রণা, থাকবে না মায়া কান্না, থাকবে শুধু সীমাহীন অনুভূতি, যেই অনুভূতি সে সাথী করে কাটিয়ে দিবো সারাটা জীবন ।

 

কিভাবে মেয়েদের impress করা যায় :
মেয়েটির শরীরের কোনো বডি পার্ট নিয়ে প্রশংসা করবে না তবে তার চুল নিয়ে সুন্দর কোন কথা বলতে পারো তার চোখের প্রশংসা করতে পারো তবে সবাই সাধারণত চুল ও চোখের প্রশংসা করে থাকে তাই একটু অন্য ভাবে প্রশংসা করে ইমপ্রেস হওয়ার চান্সটা বেশি হতে পারে যেমন – তার চোখের প্রশংসার জায়গায় চোখের পাতার প্রশংসা করতে পারো তাকে বলতে পারো যখন তোমার চোখের পলক পড়ে তখন তোমাকে স্বর্গের পরীর থেকে অনেক সুন্দর লাগে তখন সে বলতে পারে যে এটা একটু বেশি হয়ে গেলো না যদি সে এই রকম বলেও তবুও সে মনে মনে অনেক খুশি হবে কারণ এই রকম কমপ্লিমেন্ট আগে তাকে কেউ কখনো দেয়নি।

তাকে সবসময় মজার মজার কথা বলে হাসানোর চেষ্টা করুন আর নিজেও সব সময় হাসি খুশি থাকুন কারন মেয়েরা ফানি আররোমান্টিক ছেলেদের অনেক পছন্দ করে আর শুদু মেয়েরা না যে নিজে সবসময় হাসি খুশি থাকতে ভালো বাসে তাকে সবাই পছন্দ করে।

তাকে সব সময় গিফ্ট দেওয়ার চেষ্টা করুন বড়ো কোনো গিফট দেওয়ার দরকার নেই ছোটো ছোটো গিফট দিন তাতেই হবে কারণ মেয়েরা ভালোবেসে দেওয়া ছোটো গিফ্টের অনেক সম্মান করে আর হা তার জন্ম দিনে গিফট দেওয়া তো একদম ভুলবে না।

 

তার কথা বলার প্রশংসা করবে তার ভয়েস এর প্রশংসা করবে তাকে বোঝানোর চেষ্টা করবে যে তুমি তার ভয়েস শুনতে অনেক ভালোবাসো।আর তাকে সব সময় কেয়ার করবে কিন্তু ভুলেও তকে কখনো বলবে না সেটা যে তুমি তাকে কেয়ার করো শুধু দেখিয়ে কেয়ার করাটা সে একদিন নিজেই বুঝে যাবে মেয়েরা ছেলেদের মন বোঝার দিক থেকে খুব ফাস্ট হয়।

 

Leave a Comment