কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন!

কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! বালিশ ছাড়া ঘুমাতে যায় এমন মানুষের সংখ্যা নাই বললেই চলে। বর্তমানে বালিশ অনেকের মাঝে বিলাসিতাও বটে। কেউ কেউ আছে বালিশ ছাড়া একদম ঘুমাতে পারে না। কারও আবার মাথার নিচে বালিশ তো আছেই, সাথে আবার কোল বালিশ বা সাইট বালিশ দু’পায়ের মাঝে না নিয়ে ঘুমাতে অস্বস্তি বোধ করে এবং ছটফট করে থাকে। কারও আবার,নিজের বাড়ির বদলে কোথাও বেড়াতে গেলে বা হোটেলে রাত্রী যাপন করলে,সেখানে মাথার বালিশের পাশাপাশি কোল বালিশ না পেলে তার তো ঘুমটাই মাটি।

কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন!

কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! শিশু থেকে কিশোর, সব বয়সের মানুষই কোলবালিশ নিয়ে ঘুমানোকে স্বচ্ছন্দ্যবোধ মনে করেন। অনেকে ঘুমের মধ্যে কোলবালিশ খোজার জন্য সারা বিছানা হাতড়িয়ে বেড়ান। কোলবালিশ নিয়ে ঘুমানো এক প্রকার অভ্যাস। এই অভ্যাস পরিত্যাগ করা বেশ কঠিন।

বছরের পর বছর কোলবালিশ নিয়ে যারা ঘুমানো অভ্যাস করে ফেলেছেন, তারা কি কখনও ভেবেছেন এর ফলাফল কি? এর ফলে কি কি ক্ষতি হতে পারে বা এর উপকারিতা কি কি? কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! তবে মজার ব্যাপার হলো, বিশেষজ্ঞগণ বলেছেন যারা কোলবালিশ নিয়ে ঘুমায় তারা কোলবালিশ না নিয়ে ঘুমানো ব্যক্তিদের তুলনায় অনেকটা লাভবান হয় এবং সুস্থ থাকে।

কোল বালিশ নিয়ে ঘুমালে কি হয়? এর উপকারিতা কি কি ?

বিশেষজ্ঞরা বলেন, কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে মেরুদন্ড ঠিক থাকে, হাড়ের ব্যথা কমে যায়,গর্ভবতী মায়েদের ভ্রূণ সঠিক জায়গায় থাকে ইত্যাদি । চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক, কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কি কি উপকারিতা পাওয়া যায় ?

মেরুদন্ড ঠিক থাকে

বিছানায় অঙ্গিভঙ্গি ঠিক ঠাক না রেখে ঘুমালে মেরুদন্ড সহ হাড়ের অনেক সমস্যা হতে পারে। তবে দু’পায়ের মাঝে কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে মেরুদন্ড স্বাভাবিক থাকে, যা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! তাই মেরুদন্ড এবং হাড়ের বিভিন্ন ব্যথা কমাতে কোলবালিশ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

সায়াটিকা ও পিঠের নিচের ব্যথা

কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে সায়াটিক নার্ভের ব্যথা কমে যায়। যারা দীর্ঘস্থায়ী পিঠের ব্যথায় ভুগছেন তারা কোলবালিশ নিয়ে ঘুমানোর দ্বারা উপকৃত হতে পারেন।কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন!  কারণ এই অভ্যাসের মাধ্যমে আপনি অল্প সময়েই পুরনো ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

গর্ভাবস্থায় নিরাপদ

বিশেষজ্ঞরা , নারীদের গর্ভাবস্তায় কোলবালিশ নিয়ে ঘুমাতে পরামর্শ দেন। তবে এই কোলবালিশ গুলোর সি অথবা টি আকারের হতে হবে। গর্ভবতী মহিলারা এই কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে তাদের ভ্রুণ নিরাপদে সঠিক জায়গায় অবস্থান করে। এবং মেরুদন্ড স্বাভাবিক থাকে। তাদের ঘুম অনেকটা আরামদায়ক হয়, যেটা গর্ভবতী মহিলাদের জন্য অত্যাবশ্যক।

শরীরের রক্তচলাচল স্বাভাবিক রাখে

দুই পায়ের মাঝখানে কোলবালিশের কারণে দুই রানে ও হাটুর দিকে দুই পা মিলে যায় না। এ কারণে শরীরে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে বলে দাবি গবেষকদের। এক্ষেত্রে তাদের ব্যাখ্যা হলো,যারা কোলবালিশ ব্যবহার করেন না, তাদের দুই হাঁটু একসঙ্গে থাকে। কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! এতে  মাজার উচ্চতা থেকে পা পর্যন্ত উচ্চতা কমে যায় এবং রক্ত চলাচলে বাধা সৃষ্টি হয়।

হাঁটুর সমস্যা থেকে মুক্তি

দুই পায়ের মাঝে কোলবালিশ চেপে থাকার কারণে মেরুদণ্ড এবং হাঁটুর হাড়ের মধ্যে চাপ স্বাভাবিক রাখে। ফলস্বরূপ, এই অভ্যাসটি আপনার হাঁটু ব্যথা থেকে রেহাই দিবে।

নাক ডাকা সমস্যার সমাধান

যারা কোলবালিশ নিয়ে ঘুমান তারা অবশ্যই ডান পাশ বা বাম পাশ হয়ে ঘুমান। আর এর ফলে নাক ডাকার সমস্যা থাকে না। কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! কেননা, যাদের নাক ডাকার অভ্যাস আছে, তারা চিৎ হয়ে ঘুমানোর ফলে নাক ডাকেন। তাই এ ধরনের লোকদের কোলবালিশ নেওয়া উচিত।

কোলবালিশ ব্যবহার করার ইসলামিক বিধান

কোলবালিশ ব্যবহার করার ইসলামিক বিধান, আমরা অনেকেই কোলবালিশ ব্যবহার করি তবে জানি না এটা ইসলামিক বিধান মোতাবেক জায়েজ কি না? বিশিষ্ট ইসলামিক চিন্তাবিদগণের মতে সকল মহিলা ও পুরুষের কোলবালিশ ব্যবহার ইসলামিক নিয়মে বৈধ। এতে কোন বিধি নিষেধ নেই।

মেয়েরা কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কি হয়?

মেয়েরা কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কি হয়, তবে বর্তমানে অনেক যুবক যুবতীরা রাতে একাকি ঘুমানোর সময় কোলবালিশ ব্যবহার করে যৌনতায় লিপ্ত হয়ে গুনাহের কাজ করে। কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! তাই দিনের পর দিন এভাবে কোলবালিশ নিয়ে ঘুমানো গুনাহের দিকে ধাবিত হওয়ার আশংকা থাকলে তা জায়েজ হবে না।

পরিশেষে

সারাদিনের ক্লান্তি শেষে একটু নিশ্চিন্তে ঘুমানো সবারই কাম্য। রাতের ঘুম যেন শান্তিপূর্ণ হয় সেজন্য কারও প্রচেষ্টার শেষ নেই। আর তাই তো মানুষের ঘুমানোর স্টাইল একেক জনের একেক রকম। কেউ চিৎ হয়ে ঘুমায়,কেউ বা কাত হয়ে, আবার কেউ বিছানার সঙ্গে বুক মিলিয়ে ঘুমাতে আরাম বোধ করে। কোলবালিশ নিয়ে ঘুমালে কী হয়? শুনলে চমকে যাবেন! আবার কারও কারও অভ্যাস কোলবালিশ জড়িয়ে ধরে ঘুমানো, আর তাতে নাকি আরও ভাল ঘুম হয়ে থাকে।তবে কোলবালিশ নিয়ে ঘুমানোতে কোন ক্ষতিকর দিক নেই বললেই চলে। বরং এতে অনেক উপকারই হয়ে থাকে।

 

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *