৬৭ বছর আগে ঢাকায় পাকিস্তান–ভারত টেস্টের স্মৃতি ফেরাল নিউজিল্যান্ড–বাংলাদেশ

৬৭ বছর আগে ঢাকায় পাকিস্তান–ভারত টেস্টের স্মৃতি ফেরাল নিউজিল্যান্ড–বাংলাদেশ

স্বাগতিক হিসেবে পাকিস্তান প্রথম কবে ও কোথায় প্রথম অফিশিয়াল টেস্ট আয়োজন করে?উত্তর দিতে গিয়ে ইতিহাসে অমনোযোগী ক্রিকেটপ্রেমীদের ভুল হতে পারে। করাচি, লাহোর, মুলতান কিংবা পেশোয়ারের নাম মুখ ফুটে বেরিয়ে যেতে পারে; যেহেতু এসব শহরেই পাকিস্তান আন্তর্জাতিক ম্যাচগুলো আয়োজন করে থাকে।কিন্তু আয়োজক হিসেবে পাকিস্তানের প্রথম টেস্টের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ঢাকার নাম। ১৯৫৫ সালে পাকিস্তান সফরে যায় ভারত। সেই সিরিজে প্রথম টেস্ট অনুষ্ঠিত হয় ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে। বাংলাদেশ তখন পূর্ব পাকিস্তান নামে পাকিস্তানের অংশ থাকায় সেটাই স্বাগতিক হিসেবে আয়োজন করা প্রথম টেস্ট হয়ে আছে পাকিস্তানের ক্রিকেট ইতিহাসে।

প্রশ্ন হলো, হুট করে ৬৭ বছর আগের টেস্টের প্রসঙ্গ টেনে আনার কী কারণ? আসলে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের সঙ্গে সেই ঢাকা টেস্টের এক জায়গায় দারুণ মিল। ক্রিকেটের মজার সব পরিসংখ্যান নিয়ে কাজ করা কৌস্তভ গুড়িপতি জানিয়েছেন, নতুন বছরের প্রথম দিনে সর্বশেষ কোনো টেস্ট সিরিজ শুরু হয়েছে ১৯৫৫ সালের সেই ঢাকা টেস্ট দিয়ে। কিছু বোঝা গেল?পাঁচ ম্যাচের সেই টেস্ট সিরিজের প্রথমটি আয়োজিত হয়েছিল ঢাকায়। ১৯৫৫ সালের ১ জানুয়ারি টেস্টের প্রথম দিনে মুখোমুখি হয়েছিল আবদুল কারদারের পাকিস্তান ও ভিনু মানকড়ের ভারত।মাঝে এই ৬৭ বছরে নতুন বছরের প্রথম দিনে আর কোনো টেস্ট সিরিজ শুরু হতে দেখা যায়নি। এবার বাংলাদেশ দলের নিউজিল্যান্ড সফরে ফিরে এল সে নজির। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে আজ ১ জানুয়ারি শুরু হয়েছে প্রথম টেস্ট।

মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে বাংলাদেশ সময় ভোরে শুরু হওয়া ম্যাচে ৫ উইকেটে ২৫৮ রানে প্রথম দিনের খেলা শেষ করেছে নিউজিল্যান্ড।ঢাকায় অনুষ্ঠিত সে টেস্ট ড্র করেছিল ভারত–পাকিস্তান। আগে ব্যাট করে ২৫৭ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান। অর্ধশতক তুলে নেন ওয়াকার হাসান ও ইমতিয়াজ আহমেদ।মাহমুদ হোসেন ও খান মোহাম্মদের বোলিংয়ে ভারত ১৪৮ রানে অলআউট হওয়ার পর নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৫৮ রান তোলে পাকিস্তান। ২৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ২ উইকেটে ১৪৭ রানে খেলা শেষ করে টেস্ট ড্র করে ভারত।

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *