২১ কোটি ডোজ করোনা টিকা পেতে বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে চুক্তি করেছে সরকার

করোনার  প্রকোপ কমাতে টিকা ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সারা দেশের জনগণকে টিকার আওতায় আনার চেষ্টা করে যাচ্ছে সরকার। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন  উৎস থেকে আসা শুরু করেছে টিকা।  সর্বমোট ২১ কোটি ডোজ করোনা টিকা পেতে বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে চুক্তি করেছে সরকার। এরকম তথ্যই জানালেন   স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন।

শনিবার (২৪ জুলাই) বিকালে কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি প্রতিরোধ, অক্সিজেন সংকট, হাসপাতালের সুযোগ-সুবিধা ও শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি শীর্ষক স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ এসোসিয়েশনের সদস্যভুক্ত প্রতিষ্ঠানের মতবিনিময় সভায় এক জুম মিটিংয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী অংশ নেন। সেখানেই তিনি এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী  বলেন, টোটাল যে ২১ কোটি টিকার ব্যবস্থা হয়েছে তা  আগামী বছর পর্যন্ত  পর্যায়ক্রমে দেশে  চলে আসবে।   আগামীতে আরও  আসছে  ৩ কোটি চায়নার টিকা, ৭ কোটি কোভ্যাক্সের টিকা, ১ কোটি রাশিয়ার টিকা, ৩ কোটি অ্যাট্রাজেনেকার টিকা ও ৭ কোটি জনসনের টিকা।  এসব টিকা পেলে দেশের ৮০ ভাগ মানুষ   টিকার আওতায় চলে আসবে। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও জানান, এ পর্যন্ত  দেশের ১ কোটি ২০ লাখের মতো মানুষ টিকা নিয়েছেন। তিনি বলেন, “সবাইকে টিকার আওতায় আনতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ইতোমধ্যেই পর্যাপ্ত সংখ্যক টিকা দেশে পৌঁছেছে। ২৬ বা ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে আরও ৩০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে আসবে।”

টিকা সংরক্ষণের বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান যে, ২৬টি কোল্ড ফ্রিজার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে আনা হয়েছে। এগুলোয় মাইনাস (-) ৭০ ডিগ্রিতে রাখার মতো টিকাও সংরক্ষণ করা যাবে। বিভিন্ন দেশ থেকে নতুন করে আরও যে টিকা আসবে, সেগুলো সংরক্ষণ করতে কোনো সমস্যা হবে না।

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *