স্বর্ণপদক জয়ী ইঁদুর অবসর নিচ্ছেন

একের পর এক সাফল্য নিয়ে কেরিয়ারে এসেছে। বীরত্বের জন্য স্বর্ণপদকের মতো সম্মাননাও পেয়েছে। এখন তাকে অবসর নিতে হবে। স্বাভাবিকভাবেই, যে কেউ ভাববেন যে আমরা তার পেশাদার জীবনে একজন সফল ব্যক্তির কথা বলছি। কিন্তু এটি একটি ইঁদুরের বাস্তবতা। তার নাম মাগাওয়া। আফ্রিকায় বাড়ি কিন্তু কম্বোডিয়ায় কর্মক্ষেত্র। এই ইঁদুরটি দেশের মাইন সনাক্ত করে অনেকের চোখে সম্মানের জায়গা দখল করেছে।

বিবিসির একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাঁচ বছরে মাগাওয়া ৭১টি মাইন এবং বহু বিস্ফোরক সনাক্ত করে অসংখ্য জীবন বাঁচিয়েছে। এই ইঁদুরকে এর জন্য স্বর্ণপদকও দেওয়া হয়েছে। তবে সাত বছর বয়সী আফ্রিকান প্রাণীটি এখন অবসর নিচ্ছে। তুলনামূলকভাবে তরুণ ইঁদুর দ্বারা খনি সনাক্তকরণ প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে।
মাগাওয়ার দেখাশোনা করা ম্যালেন জানিয়েছেন, দৈত্য আফ্রিকান ইঁদুর এখন ধীর হয়ে গেছে। সে এখন বৃদ্ধ। তাঁর দাবির এখনই সম্মান করা দরকার।
কম্বোডিয়া জুড়ে আনুমানিক ৬০ লাখ মাইন পুতে রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মাইনগুলি সনাক্ত করতে মাগাওয়া আফ্রিকার তানজানিয়া থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশে আনা হয়েছিল। অনেক ইঁদুর বেলজিয়ামে নিবন্ধিত তানজানিয় ভিত্তিক দাতব্য অ্যাপোপোতে খনি সনাক্ত করতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। ১৯৯০ সাল থেকে প্রশিক্ষিত এই ইঁদুরগুলিকে ‘নায়ক ইঁদুর’ বলা হয়। মাগওয়া ছিল সেই সাহসী ইঁদুরগুলির মধ্যে একটি।
মাগওয়া কাম্বোডিয়ান খনি অ্যাকশন সেন্টারের (সিএমএএসি) অধীনে কম্বোডিয়ায় খনি কর্মে জড়িত ছিলেন। অবসর গ্রহণের পর থেকে অপোপো সিএমএএকে প্রশিক্ষিত ইঁদুরগুলির একটি নতুন গ্রুপ সরবরাহ করেছে। তবে অবসর নেওয়ার পরে মাগাওয়াকে আরও কয়েক দিন থাকতে হয়েছে। দাতব্য সংস্থাটি জানিয়েছে যে এটি নতুন ইঁদুরের “পরামর্শদাতা” হিসাবে আরও কয়েক সপ্তাহ কাজ করবে। মাগাওয়া নতুনদের কম্বোডিয়ান পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে সহায়তা করবে।

“এখনও অবধি নিখুঁত সমাধান কেউ পাঠাতে সক্ষম হয় নি,” ম্যালেন বলেছিলেন। তাঁর সাথে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত। ‘ইঁদুরের ওজন ১.২ কেজি এবং ৭০ সেমি লম্বা। মাগওয়া অন্যান্য প্রজাতির ইঁদুরের চেয়ে অনেক বড়। তারপরেও, আপনি যদি এই ওজন নিয়ে কোনও মাইনের উপর দিয়ে হেটে গেলেও এটি বিস্ফোরিত হয় না।
অ্যাপোপো বলেছেন যে টেনিস কোর্টের সমান কোথাও যদি মাইন থাকে তবে মাগাওয়া মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যে এটি বের করতে পারে। কোনও ব্যক্তির মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে এটি করতে এক তিন থেকে চার দিন সময় লাগবে।

মাগাওয়া জীবন রক্ষায় নিবেদিত প্রতিশ্রুতির স্বীকৃতি হিসাবে গত সেপ্টেম্বর মাসে পিডিএসএ স্বর্ণপদক জিতেছিল। এই স্বর্ণপদকটি প্রাণীদের সাহসী কাজের জন্য দেওয়া হয়। এই সম্মানটিকে প্রাণীদের জন্য জর্জ ক্রস মেডেল বলা হয়। সাহসিকতার জন্য ব্রিটিশ সরকারের সর্বোচ্চ পদক জর্জ ক্রস

অপোপুরের ৭৭ বছরের ইতিহাসে মাগাওয়াই প্রথম প্রাণী যিনি পিডিএসএ পদক জিতেছেন।

Leave a Comment