সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ – রংপুর ডেইলী
সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ

সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ

সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ । নিম্নবিত্ত অথবা মধ্যবিত্ত কিংবা উচ্চবিত্ত। যেকোনো বিত্তেই সম্পর্ক অনেক মধুর হওয়া একান্ত প্রয়োজন।
তবে বিশ্ব-সংসার বাস্তবতাবাদী বলে এ মধুর সম্পর্কেও মনোমালিন্য থাকে ,ঝগড়া এমনকি বিচ্ছেদের মতো ঘটনাও। বিচ্ছেদ শব্দটি উচ্চারণের মতোই নর-নারীর জীবনে মেনে নেওয়া অনেক কঠিন। যদিও উন্নত রাষ্ট্রগুলোতে তা সহজভাবে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়।এতো মনোমালিন্যের জের ধরে বিচ্ছেদে গড়ালেও অনেকেই পুরনো সঙ্গীর সঙ্গে আবার সংসার বাঁধতে চান।কেউ আবার বিচ্ছেদের পর সুখ-দুঃখ ভাগাভাগির জন্য হৃদয়ে নতুন কারো ছবি আঁকেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অকল্যান্ড ইউনিভার্সিটির একটি সাম্প্রতিক গবেষণা এবং একই ইনস্টিটিউটের সমাজবিজ্ঞানের অধ্যাপক টেরি অরবাচের লেখা একটি বই, কীভাবে একটি ভাঙা সম্পর্ককে স্থিতিশীল করা যায় তার কিছু টিপস দেয়।

গবেষণাটি ১৯৮৬ সাল থেকে বিবাহিত ৩৭৩ জন বিবাহিত দম্পতির উপর পরিচালিত হয়েছিল। সমীক্ষায় দেখা গেছে যে ৪৮শতাংশ দম্পতি যারা প্রাথমিকভাবে বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছিল এবং ৬১শতাংশ দম্পতি যারা পুনরায় বিয়ে করেছিলেন তারা স্বীকার করেছেন যে একটি ভাল সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য কিছু পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।

গবেষণায় দেখা গেছে, নতুন সম্পর্কে জড়ানো দম্পতির সংখ্যা ৯০ শতাংশ সফল হয়েছে। অর্বাক তার “Finding Love Again: 6 Simple Steps to a New and Happy Relationship” বইয়ে একটি নতুন এবং সুখী সম্পর্কের জন্য ০৫টি ধাপ উল্লেখ করেছেন। বইটিতে অর্বাক বলেছেন যে এই পদক্ষেপগুলির একটি যদি কারও মধ্যে থাকে তবে সে তার নতুন প্রেমিক বা স্ত্রীর কাছ থেকে আন্তরিক ভালবাসা পাবে।

অর্বাকের বই ও গবেষণা অনুযায়ী সম্পর্ক সুন্দর করতে ৫টি পরামর্শ :

১. নিজের সম্পর্ক বিচ্ছেদের বিষয় আলোচনা করা থেকে বিরত থাকুন এবং সম্পর্ক ফেরানোর জন্য পথ খুঁজুন :
অনেকেই সঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্ক বিচ্ছেদের পর হতাশ হয়ে যান। আপনজনতো বটেই অনেক সময় বন্ধু মহলে এ ব্যাপারে আলোচনা করে হতাশা বাড়িয়ে নেন। সম্পর্ক ভাঙনের আলোচনা পরিহার করে কিভাবে ভুল বোঝাবুঝির কারণে ভঙ্গ হওয়া সম্পর্কে ফিরে পাওয়া যায় এ ব্যাপারে উপদেশ খুঁজুন। ভাঙা সম্পর্ক নিয়ে নেতিবাচক চিন্তা বাদ দিয়ে নতুন করে সম্পর্ক গোছানোর জন্য ইতিবাচক চিন্তা করুন।

২.পুরাতন অভ্যাস পরিবর্তন করুন:সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ

প্রেমিক বা বিবাহিত জীবন শুরু করার আগে আপনার কিছু সাধারণ অভ্যাস থাকতে পারে। যা, অবশ্যই, ভিডিওটি রাতারাতি উত্তেজনা তৈরি করেছে। এই অভ্যাসগুলো বদলান অর্থাৎ ত্যাগ করুন। এমনকি মোটরসাইকেল চালানোর সময় ফোনে কথা বলা বা ধূমপান করা ছেড়ে দিন। পুরনো গান ফিরবে, চাইলেই নতুন মানুষের মন জয় করা সহজ হবে!

৩. অর্থ উপার্জনের ক্ষেত্রে নতুন পন্থার জন্য সঙ্গীর সঙ্গে ‍পরামর্শ করুন :
অর্থ হল খারাপ মানসিক ছাপ পুড়িয়ে ফেলার প্রকৃত অর্থ। শুধু অর্থের কারণে পৃথিবী কতটা ভেঙে পড়েছে হিসাব করা কঠিন। তাই পুরানো সঙ্গী ফিরে গেলে বা নতুন সঙ্গী যোগদান করলে আর্থিক বিষয়গুলো নিয়ে খুব খোলামেলা আলোচনা করুন। আপনার নিজের চিন্তাভাবনা এবং আপনার সঙ্গীর দেওয়া পরামর্শের সমন্বয়ে, সম্পর্কের মতো একটি সহজ সমাধান আপনার দ্বৈততায় আসতে পারে।

৪.সঙ্গীর সঙ্গে যোগাযোগের পন্থা উন্নতি করুন :সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ
আত্মসম্মান এবং আত্মসম্মান উভয়ই অনুভব করতে শিখুন। আপনার সঙ্গীর সাথে যোগাযোগের প্রথাগত উপায় ত্যাগ করুন এবং নতুন এবং ভাল উপায় অবলম্বন করুন। ইতিবাচক আচরণ, পারস্পরিক আলোচনা এবং পরামর্শ আপনার প্রতি পুরানো বা নতুন সঙ্গীকে দুর্বল করে দেবে।

৫. ঝামেলা এড়িয়ে চলুন :
গ্রামীণ সমাজে একটা প্রবাদ আছে। হাঁড়ি একসাথে থাকলে ঘর খাবে। একই ছাদের নিচে বসবাস করলেও মাঝে মাঝে মনোমালিন্য হবেই। যাইহোক, এই সাধারণ সমস্যাগুলিকে ইতিবাচক উপায়ে এড়িয়ে চলুন। আগুনে ফুঁ দিলে আগুন যেমন বাড়বে তেমনি ঘরোয়া কলহের ক্ষেত্রে নেতিবাচক মন্তব্য বা আচরণও তা বাড়িয়ে দেবে। তাই ঝামেলা এড়িয়ে চলুন, জীবন ও পরিবারকে ভালোবাসুন।

নতুন গান হোক বা পুরনো গান, যেটাই শোনা যাক, তাতে নতুন কিছু আছে। একইভাবে সম্পর্কের ক্ষেত্রে নতুন ইতিবাচক আচরণ সঙ্গীর মন জয় করতে পারে।

সম্পর্ক সুন্দর রাখতে চাইলে যে ৪ কথা বলবেন না: সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ

একটি সম্পর্ককে সুন্দর বা কুৎসিত করার জন্য কয়েকটি বাক্যই যথেষ্ট। কিছু শব্দ আমাদের আনন্দ দেয়, কিছু শব্দ আবার আমাদের হৃদয় ভাঙার জন্য যথেষ্ট।সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ, যারা প্রেম বা দাম্পত্য সম্পর্কে জড়িত তাদের কথা বলার ক্ষেত্রে আরও সতর্ক হওয়া উচিত। এমন কোন শব্দ বা বাক্য বলা যাবে না যা অন্যদের জন্য কষ্ট দেয়।

আপনার বলা একটি বাক্য সম্পর্কটিকে ভেঙে যাওয়ার দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যেতে পারে। তাই ভাঙ্গন রোধ করতে চাইলে কথা বলার সময় আরও মনোযোগী হতে হবে। সম্পর্ক সুন্দর রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে। এটি উভয় ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। আর সেই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে আমাদের কিছু বলা থেকে বিরত থাকতে হবে। আসুন এখন জেনে নেওয়া যাক আপনি আপনার সঙ্গীকে কী বলতে পারেন।

নিজের সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য কেউ শুনতে চায় না। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ, একজন মানুষ যতই বিরক্তিকর হোক না কেন, তিনি কখনই আপনার কাছ থেকে এই মন্তব্য পেতে চাইবেন না যে তিনি খুব বিরক্তিকর। তাকে এটা বলা তাকে মানসিকভাবে আঘাত করা। তাই এ ধরনের নেতিবাচক মন্তব্য থেকে বিরত থাকুন। পরিবর্তে, কেন তিনি নীরব বা খোলামেলা কথা বলতে অক্ষম তা নিয়ে খোলামেলা কথা বলুন। সহজ সমাধানের কোন বিকল্প নেই।

তুমি আমার কথা শোনো না কেন ?সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ

তুমি আমার কথা শোনো না কেন

এই ধরনের কথা সঙ্গীকে এক-দেড়বার বলা যেতে পারে, তবে তিনিও অনেক তিরস্কারের সুরে বলবেন। কিন্তু আপনি যদি সবসময় চান যে সে আপনার কথা শুনুক, সেটা ভুল। এটা বলা আপনার সংকীর্ণ ও অত্যাচারী স্বভাবের প্রমাণ হবে। তিনি আপনার কথা শুনতে বাধ্য নন। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ ,একজন স্বাধীন ব্যক্তি হিসাবে, তার মতামত এবং মনোভাব গ্রহণ করতে শিখুন। সম্পর্ক সুন্দর হবে।

তুমি খুব স্বার্থপর

সবার আগে নিজের স্বার্থ দেখাটাই স্বাভাবিক। তাই আপনার সঙ্গীকে স্বার্থপর বলা বন্ধ করুন। ঝগড়া-বিবাদে তাকে এমন কথা বললেও এক ধরনের ক্ষত তৈরি হবে। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ,যদি সে স্বার্থপর হয় তবে তাকে আপনি যে ছাড় দেবেন তা দেওয়া বন্ধ করুন। কিন্তু এটাকে স্বার্থপর বলে আপনার পূর্ণ সম্ভাবনার চেয়ে কম যান না।

তুমি অনেক বদলে গেছো

পৃথিবীর সবকিছুই বদলে গিয়েছিল। কিছুই চিরকাল একইভাবে প্রবাহিত হয় না। নিজের দিকে তাকান, আপনি কি সব সময় একই রকম? তাই এটিকে মঞ্জুর করে নিবেন না যে অল্প অল্প করে পরিবর্তন ঘটে। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ, ভালোবাসা মাপার কোনো যন্ত্র নেই, কম-বেশি হতেই পারে। যদি সেই পরিবর্তন আপনাকে আঘাত না করে, তবে সেই পরিবর্তনটি গ্রহণ করুন।

সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার কারণ এবং যেভাবে টিকিয়ে রাখবেন

মধুর সম্পর্ক গড়ে তোলা যত সহজ, তা বজায় রাখা তত কঠিন। ছোটখাটো ভুলে গভীর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক এক নিমিষেই শেষ হয়ে যায়। সাধারণত, দুর্বল মনের মানুষরাই সম্পর্কের টানাপোড়েনে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কিছু খারাপ অভ্যাস খারাপ সম্পর্কের জন্য দায়ী। তাই তাদের চালিয়ে যেতে দ্রুত তাদের পরিত্রাণ পান.

# অন্যের প্রশংসা করা একটি সম্পর্ক বজায় রাখার একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এতে ভালোবাসা বাড়ে। একই সঙ্গে পারস্পরিক সম্পর্ককে মজবুত করে। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ, অন্যের কাজের প্রশংসা করুন, তা যত ছোটই হোক না কেন। একটু ‘ধন্যবাদ’ সম্পর্কটিকে আরও সুন্দর করে তোলে।

# বন্ধু-সহকর্মীদের বিশ্বাস করুন। তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, ই-মেইল, সোশ্যাল মিডিয়া কার্যকলাপের উপর নজর রাখুন। ভালো কথা/কাজ হলে উৎসাহ, সমর্থন। আপনার যদি কোন বিষয়ে সমস্যা হয়, তাদের সাথে কথা বলুন এবং কোনটি সঠিক তা ব্যাখ্যা করুন। আলোচনা সব সমস্যার সমাধান করে। সবাইকে বিশ্বাস করুন।

# একে অপরকে দোষারোপ করা সম্পর্ক ভাঙার অন্যতম কারণ। আপনার ভালবাসার কাউকে দোষ দেওয়া বন্ধ করুন। তার খারাপ অভ্যাস থাকতে পারে। তাই তাকে দোষারোপ না করে ব্যাখ্যা করুন। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ, ভুল সংশোধন করতে সাহায্য করুন। আপনার ভুল স্বীকার করতে নির্দ্বিধায়. একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা থাকলে সম্পর্ক অটুট থাকে।

# কোথাও কারো সাথে দেখা করতে গেলে দেরি করবেন না। প্রথমে তাকে কল করতে ভুলবেন না। যদিও বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ মনে নাও হতে পারে, এটি সম্পর্ক নষ্ট করার জন্য অনেকাংশে দায়ী। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ, সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে হলে নিয়মিত ফোনে খোঁজখবর নিতে হবে। কাউকে ফোন করে অপেক্ষা করাবেন না। কথা না বলে সম্পর্কের প্রতি অনীহা প্রকাশ করা। প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করা যায় না।

#মিথ্যা বলা যে কোন সম্পর্কের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এটা ঠিক যে সত্য সবসময় তিক্ত হয়! কিন্তু সম্পর্কের ক্ষেত্রে যত কঠিন সত্যই হোক না কেন, সঙ্গীকে বলা উচিত। এতে সাময়িকভাবে সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে। তবে এটি দীর্ঘমেয়াদী সম্পর্কের জন্যও উপকারী। কেউ মিথ্যা আশ্বস্ত করা যাবে না.

#অনেকে মনে করেন ভালোবাসা থাকাটা জরুরী, অন্য কিছু নয়। কিন্তু না! একে অপরের সাথে সময় কাটানো গুরুত্বপূর্ণ। আমাকে তার সাথে চ্যাট করতে হবে। তার কিছু খাওয়া দরকার। সময়ে সময়ে উপহার দিতে হবে।

# একে অপরের প্রতি আনুগত্য অপরিহার্য। আপনাকে সবসময় সিনিয়রদের ম্যানেজ করতে হবে। তাদের কথা অস্বস্তিকর হলেও সহ্য করতে হয়। মুখে মুখে তর্ক করার দরকার নেই। সুন্দর সম্পর্ক গড়তে পরামর্শ,চিৎকার করা যাবে না। ছোট-বড় সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রাখতে হবে। এর জন্য যতটা সম্ভব মাথা ঠান্ডা রাখতে হবে। কেউ কড়া কথা বললে হজম করতে শিখতে হবে। রাগ না করে উপায় নেই।

সর্বোপরি, একটি সম্পর্ক একটি চারা গাছের মতো। একটি গাছের যত্ন নিতে হবে এবং বড় করতে হবে। সম্পর্কের জন্যও যত্ন, সতর্কতা, বিশ্বাস এবং ভালবাসা প্রয়োজন।

 

রংপুর ডেইলী রংপুরের সবচেয়ে আপডেট সংবাদ দেশ ও আন্তজার্তিক নিউজ প্রকাশে বাধ্য থাকিবে। রংপুরের সব রকমের নিউজ পেতে রংপুর ডেইলী ভিজিট করুন