সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে দেশের ৪০ টি জেলা

করোনা মহামারীর প্রকোপ যেনো দিনকে দিন বেড়েই চলেছে।সাম্প্রতিক সময়ে অর্থাৎ ১৪ থেকে ২০ জুন এর মধ্যে করোনা নমুনা পরীক্ষা করে জানা যায় যে,দেশের ৪০ টি জেলায় করোনা সংক্রমণ এর দিক থেকে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তাদের এক সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।
করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দেশের ১৫ টি জেলার সীমান্তবর্তী এবং এদের পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতে লকডাউন চলছে।তারপরেও জনসাধারণ অসচেতনতার কারণে কোনরকম বিধিনিষেধ না মেনেই বাহিরে বের হচ্ছেন, লকডাউন মানছেন না।যার কারণে আজ ১৫ টি জেলার মধ্যে ১০ জেলায় করোনা সংক্রমণ অত্যধিক হারে বেড়ে গিয়েছে।
এদের মধ্যে উচ্চ ঝুকিপূর্ণ জেলা হিসেবে চিহ্নিত জেলাগুলোর মধ্যে রয়েছে,ঢাকা,নীলফামারী,কুমিল্লা,পাবনা,সিরাজগঞ্জ,রাঙামাটি,গাইবান্ধা,নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ,হবিগঞ্জ,মুন্সীগঞ্জ,পঞ্চগড়,সুনামগঞ্জ,লক্ষ্মীপুর,মৌলভীবাজার।যেসব জেলায় করোনা সংক্রমণের হার ১০ শতাংশ বা তারও বেশি ঐসকল জেলাগুলি উচ্ছিঝুকিতে আছে বলে চিহ্নিত করেছে ডাব্লিউ এইচ ও।এছাড়া করোনা শনাক্তের হার ৫-১০ শতাংশের মধ্যে হলে উচ্চ ঝুঁকি আর এর চেয়ে কম হলে নিম্ন ঝুঁকিতে আছে বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।এছাড়া ডাব্লিউ এইচ ও এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে দেশের সব বিভাগে করোনা সংক্রমণ বেড়ে গিয়েছে।করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখার নির্দেশে এক বিশেষজ্ঞ বলেন,দেশের যে সকল স্থানে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা কম,সেই সকল জায়গাগুলোতে যাতায়াত নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিত।এতে করোনা সংক্রমণ কিছু হলেও কমানো যাবে, বাড়বেও না।তবেই কুরবানী ঈদ এর আগে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব।









By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *