শিশুবক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানি আটক

দাঙ্গা গিয়ারে পুলিশ শুক্রবার মতিঝিলের শাপলাচত্তর এলাকায় একটি সমাবেশে হামলা করে শত শত প্রতিবাদকারীকে ট্রাকে করে সরিয়ে দেয়। এরই মধ্যে প্রতিবাদে অংশ নিতে পুলিশ রফিকুল ইসলাম ওরফে শিশুবক্তাকে গ্রেপ্তার করে।

শাপলাচত্তরের মধ্য দিয়ে দৈনিক বাংলা-গুলিস্তান সড়কটি ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার কারণে বন্ধ রয়েছে। এলাকার পরিস্থিতি উত্তাল। তবে বিকল্প রাস্তা হিসাবে যানবাহন শাপলাচত্তর থেকে ফকিরাপুলের দিকে যাত্রা করছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে রাজধানীর মতিঝিল শাপলাচত্তরে যুব অধিকার কাউন্সিলের ব্যানারে বিক্ষোভ হয়েছে। যুব ও ছাত্র অধিকার সহ বেশ কয়েকটি সংস্থার শ্রমিকরা মিছিলে অংশ নিয়েছিল। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সাথে সংঘর্ষে পুলিশ মিছিলটি থামিয়ে দেয়। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ও সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করেছে। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছুঁড়ে মারে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুর ১২ টায় মতিঝিল শাপলাচত্তরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে প্রায় ৩০ মিনিট ধরে উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এই ঘটনার পর পুলিশ মতিঝিল এলাকা থেকে শিশু স্পিকার রফিকুল ইসলাম মাদানিসহ ১১ জনকে আটক করে একটি কাভার্ড ভ্যানে করে নিয়ে যায়।

আজকের প্রতিবাদ থেকে গ্রেপ্তার হওয়া রফিকুল ইসলাম রাজধানীর জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেছেন। তার দেহের আকার ছোট হওয়ার কারণে সকলেই তাকে শিশু স্পিকার বলে অভিহিত করেছিলেন এবং এভাবেই তিনি পরিচিত হয়েছিলেন। পশ্চিম নেত্রকোনা জেলার বিলাসপুরের সাওতুল হেরা মাদ্রাসার পরিচালক রফিকুল ইসলাম ২০ দলীয় জোটে উলামায়ে ইসলাম ও রাবেতাতুল ওয়াজিনের সাথে যুক্ত বলে জানা গেছে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অধিকার ও শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, পুলিশের সাথে সংঘর্ষ এবং সোনার নেত্রী হিসাবে তানজিদা দুজন আহত হয়েছেন। তাদের বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

এর আগে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) বিকেলে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের বিক্ষোভ ও পুতুল পুড়িয়ে দেওয়ার সময় নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন দাস চত্তরে একটি বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়। সাংবাদিক ও ছাত্র জোতের নেতাকর্মীসহ পঁচিশজন আহত হয়েছেন। ছাত্রলীগের নেতারা এই হামলার জন্য ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের দোষ দিয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা তখন বলেছিলেন যে নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে আগমনের বিরোধিতা করার জন্য মঙ্গলবার বিকেলে Progাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যটিতে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের পূর্ব-আয়োজন করা কর্মসূচি ছিল। তবে সকাল থেকেই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা রাজু ভাস্কর্য এলাকায় অবস্থান নেন। বেলা সাড়ে ৫ টার দিকে ছাত্রজোটের ৩০-৪০ জন নেতা-কর্মীরা টিএসসি চত্বর থেকে শাহবাগের দিকে যাত্রা করে টিএসসিতে ফিরে এসে দাসের সামনে নরেন্দ্র মোদীর পুতুল জ্বালিয়ে ভারত বিরোধী শ্লোগান দিতে থাকেন।

Leave a Comment

betvisa