রাশিয়ার ছোড়া ১৮ ক্ষেপণাস্ত্রের ১৫টিই ভূপাতিত করল ইউক্রেন

ইউক্রেনজুড়ে বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে বড় ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। গত তিন দিনের মধ্যে এ ধরনের দ্বিতীয় হামলা এটি। তবে রুশ বাহিনীর ছোড়া ১৮টি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের ১৫টিই ভূপাতিত করার দাবি করেছে ইউক্রেন।

আজ সোমবার দিনের শুরুতে এ হামলা চালানো হয়। এমন সময় এ হামলার ঘটনা ঘটল, যখন পাল্টা হামলার প্রস্তুতি গুছিয়ে আনার কথা জানিয়েছে কিয়েভ।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বলেছেন, হামলায় দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় একটি শহরের রেল যোগাযোগকেন্দ্রে আগুন ধরে যায়। এতে ৩৪ জন আহত হন। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি ঘরবাড়ি।

ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী বলেছে, রুশ বাহিনীর ছোড়া ১৮টি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে ১৫টিই সফলভাবে ভূপাতিত করা হয়েছে। এতে রাজধানী কিয়েভ ও অন্য গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোকে হামলা থেকে রক্ষা করা গেছে।

বার্তা আদান-প্রদানের সামাজিক মাধ্যম টেলিগ্রামে ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার ইন চিফ ভ্যালেরি জালুঝনি বলেছেন, ‘(স্থানীয় সময় সোমবার) রাত আড়াইটার দিকে রাশিয়ার আগ্রাসী বাহিনী বোমারু বিমান থেকে ইউক্রেনে হামলা চালায়।’

কিয়েভের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আল-জাজিরা জানিয়েছে, রাজধানীকে লক্ষ্য করে ছোড়া সব ক্ষেপণাস্ত্রই ধ্বংস করা হয়েছে। কিয়েভকে রক্ষায় আশপাশের অঞ্চলের আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থারও সহায়তা নেওয়া হয়। এখানে হতাহত হওয়ার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

তবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির খবর এসেছে পাভলোহরাদ থেকে। দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলীয় যুদ্ধক্ষেত্রের কাছের এ শহরের গুরুত্বপূর্ণ রেল যোগাযোগকেন্দ্রে হামলাটি হয়েছে।

জাপোরিঝঝিয়া অঞ্চলে রাশিয়ার নিয়োগ করা এক কর্মকর্তা পাভলোহরাদে ছড়িয়ে পড়া আগুনের একাধিক ছবি সামাজিক মাধ্যমে দেন। তিনি বলেন, এই এলাকার সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে রুশ বাহিনী।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারাও পাভলোহরাদ শহরের পুড়ে যাওয়া স্থাপনার ছবি প্রকাশ করেছেন। তাঁরা বলেছেন, একটি শিল্প স্থাপনায় হামলা হয়েছে। তবে এটি নিয়ে সুনির্দিষ্ট করে তাঁরা কিছু বলেননি। শহরটিতে হামলায় ১৯টি অ্যাপার্টমেন্ট ব্লক, ২৫ বাড়ি, ৩টি বিদ্যালয়, ৩টি কিন্ডারগার্টেন ও কয়েকটি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আহত হয়েছে ৩ শিশুসহ ৩৪ জন।

রুশ সামরিক বাহিনী রাতভর ইউক্রেনীয় সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রিয়া বলেছে, অস্ত্রের মজুত, গোলাবারুদ কারখানাসহ নির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানা হয়েছে।

ঠিক ৩ দিন আগে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২৩ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হন। এদিন ইউক্রেনের উমান শহরের সুউচ্চ একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হেনেছিল। এটি ছিল দুই মাসের মধ্যে প্রথম বড় ধরনের রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা।

 

Leave a Comment

betvisa