বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০% যারা করতে চান তারা আচজকের পুরো আর্টিকেলটি অনুসরণ করুন। চলুন জেনে নেওয়া যাক বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%।

 

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০% অনেক রোগী আমাদের বলেছেন যে ওয়েবসাইট থেকে বিষয়বস্তু পড়ে এবং অনুসরণ করার পরেও বীর্য ঘন হয় না। যার কারণে আমরা পরীক্ষামূলকভাবে বিভিন্ন রোগীর চিকিৎসা করেবীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০% সব উপায়ে 100% সফলতা পাই। যেকোনো রোগের বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০% সঠিক নির্ণয় ও চিকিৎসার মাধ্যমে 100% পুনরুদ্ধার করা সম্ভব।

বীর্য ঘন ও আঠালো করার পরীক্ষিত উপায়

বীর্য ঘন ও আঠালো করার পরীক্ষিত উপায় অকাল বীর্যপাতের কারণে যৌন মিলনের সময় সঙ্গীর লজ্জা। প্রায় 99% পুরুষ বীর্য পাতলা হওয়ার জন্য অকাল বীর্যপাতকে দায়ী করে বীর্য ঘন ও আঠালো করার পরীক্ষিত উপায়। বীর্য ঘন করার অনেক উপায় বিভিন্ন বই এবং ওয়েবসাইটে পাওয়া যায়। যাইহোক বীর্য ঘন ও আঠালো করার পরীক্ষিত উপায়, সব পদ্ধতি কার্যকর হতে পারে না।

 

বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ

বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ বীর্য ঘন করার জন্য চিকিৎসা গ্রহণ করার আগে আপনাকে জানতে হবে বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ। যদি এই বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ উভ্যাসগুলো আপনার মধ্যে মিল পান অবশ্যই সেগুলো পরিত্যাগ এবং নিয়ম মেনে চলতে হবে। তাছাড়া ১০০% ফলাফল আশা করা যাবে না। বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ হস্তমৈথুন অভ্যাস। বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ অনিয়মিত সহবাস। বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ উত্তেজনামুলক চিন্তাভাবনা। বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ পর্ণ ভিডিও, চটি বই পড়া। বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ অধিকহারে রাত জাগা। বীর্য পাতলা হওয়ার কারণ মাদকাসক্ত।

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%

যদি মলত্যাগ অনিয়মিত হয়, চিকিত্সার আগে জোলাপ গ্রহণ করুন। গ্যাসের সমস্যা থাকলে এক টুকরো কাঁচা আদা চিবিয়ে সকালে খালি পেটে ১ গ্লাস পানি পান করুন। তারপর শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ানোর জন্য চিকিৎসা নিন।

 

বীর্য ঘন ও গাঢ় করার ঘরোয়া চিকিৎসা

বীর্য ঘন ও গাঢ় করার ঘরোয়া চিকিৎসা যারা করতে চান তারা বীর্য ঘন ও গাঢ় করার ঘরোয়া চিকিৎসা ফলো করুন। নিচে বীর্য ঘন ও গাঢ় করার ঘরোয়া চিকিৎসা দেওয়া হল।

১। কাঁচা রসুনের কোয়াঃ

কাঁচা রসুনকে বলা হয় গাবির পেনিসিলিন। কাঁচা রসুনের কুঁচি দিনে 2 বার প্রতিদিন যে কোনো সময় চিবিয়ে খান। এতে আপনার লিঙ্গে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে। ফলে লিঙ্গ শক্ত হবে, সহজে নিস্তেজ হবে না। বীর্যপাতের পরও আপনি দীর্ঘ সময় অনায়াসে সহবাস চালিয়ে যেতে পারেন। তাছাড়া কাঁচা রসুন বীর্য ঘন ও ঘন করতে সাহায্য করে। আমাদের অনেক রোগী বর্তমানে শুধুমাত্র কাঁচা রসুন কোয়া খাওয়ার পর সুস্থ।

দ্রুত উপকার পেতে এক চামচ খাঁটি মধুর সঙ্গে কাঁচা রসুনের লবঙ্গ খেতে পারেন। তবে বেশি পরিমাণে কাঁচা রসুন খাওয়া ক্ষতির কারণ হতে পারে। প্রথমে 10/12 দিন নিয়মিত কাঁচা রসুনের লবঙ্গ খান। আপনি সর্বাধিক 20 দিনের মধ্যে আপনার বীর্যের ঘনত্ব জানতে পারবেন। বীর্য সুস্থ রাখতে ১ মাস পর পর একই ভাবে খেতে পারেন।

রসুনের পেস্ট তৈরির পদ্ধতি:

1. বড় আকারের লবঙ্গের জন্য 7/8 লবঙ্গ বা রসুনের ছোট লবঙ্গের জন্য 10 লবঙ্গ কাঁচা রসুন নিন এবং একটি ব্লেন্ডারে ভালভাবে রস বের করুন।

2. একটি পাত্রে রসুনের রস রাখুন এবং এতে 3 চামচ কালোজিরার তেল দিন।

3. তিন চামচ খাঁটি মধু যোগ করুন এবং ভালভাবে মেশান।

রসুনের পেস্ট তৈরি হয়ে গেলে, প্রতিদিন সকালে খালি পেটে 2 চামচ এবং যৌন মিলনের 10 মিনিট আগে দুই চামচ নিন। তাহলে এটি বাজারে দীর্ঘস্থায়ী মিলনের এককালীন ট্যাবলেটের চেয়ে দ্বিগুণ বেশি কাজ করবে।

সতর্ক বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%:
খালি পেটে রসুনের কোয়া খেলে গ্যাস হতে পারে। তাই রসুক কোয়া খাওয়ার পর ১/২ গ্লাস পানি পান করুন। বুক অত্যধিক পুড়ে গেলে কাঁচা রসুনের লবঙ্গ খাওয়া এড়িয়ে চলুন এবং বীর্য ঘন করার নিচের যে কোনো একটি পদ্ধতি বেছে নিন অথবা আপনি সব পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন।

2. খেজুর গুঁড়া এবং মধু:-

খেজুর এবং মধু এমন পুরুষদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, যারা চান না যে তাদের লিঙ্গ সহজে উত্তেজিত হোক। আমরা জানি খেজুর ও মধু বিভিন্ন ভিটামিনে ভরপুর। সহবাসের ৩০ মিনিট পর আজওয়া খেজুর ও এক চামচ মধু মিশিয়ে খেলে সহজে বীর্যপাত হবে না। তাছাড়া প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ১টি আজওয়া খেজুর ও ১ চামচ মধু এবং ১/২টি আজওয়া খেজুর ও ১ চামচ মধু ঘুমানোর আগে খেলে ইনশাআল্লাহ ৭ দিনের মধ্যে আপনার বীর্য ঘন, গাঢ় হবে এবং আপনি আরাম বোধ করবেন। সহবাসে আগের তুলনায় আপনি যদি চান, আপনি খেজুরের পেস্ট তৈরি করতে পারেন এবং পরিবর্তে সেগুলি খেতে পারেন। তাহলে ফলাফল দ্রুত পাওয়া যাবে।

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%

দ্রষ্টব্য: আপনি আজওয়া খেজুরের পরিবর্তে যেকোনো খেজুর (মদিনা) ব্যবহার করতে পারেন। তবে দ্রুত বীর্য ঘন করার জন্য আজওয়া খেজুর সবচেয়ে ভালো। অতিরিক্ত মধু খেলে অনিয়মিত মলত্যাগ হতে পারে। তাই ১ চামচের বেশি খাওয়া এড়িয়ে চলুন।

খেজুরের হালুয়া তৈরি:

1. 1/2 কেজি খেজুর কেনার পর সব খেজুরের বীজ বের করে রোদে শুকিয়ে নিন।

2. শুকিয়ে গেলে ব্লেন্ডার বা যেকোনো মেশিন দিয়ে খেজুর পিষে নিন।

3. খেজুরের গুঁড়া হলে একটি পাত্রে নিয়ে তাতে 2/4 চামচ সবরি কলা, 2/3 চামচ মধু মিশিয়ে খামিরের মতো করে নিন।

খাওয়ার নিয়ম:

প্রতিদিন সকালে 2 চামচ খালিপেট খান এবং খেজুরের পেস্ট সহবাসের 10 মিনিট আগে বা রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে।

খেজুরের পেস্ট বানিয়ে প্রতিদিন সেবন করলে বীর্য ঘন হবে এবং অকাল বীর্যপাত রোধ হবে।

3. বীর্য ঘন করার সিরাপ:

সারাজীবন তারুণ্য ধরে রাখতে এই শরবত অনস্বীকার্য ভূমিকা পালন করে। এই শরবত তৈরি করতে ইশবগুল ভূষি, তকমা, তালমাখানা, তালমিশ্রী ও খাঁটি গুড়ের প্রয়োজন হয়। এই শরবত খেলে শরীর ঠান্ডা থাকবে এবং বীর্য ঘন হবে। সারাজীবন তারুণ্য ধরে রাখতে প্রতিদিন এই শরবত খেতে থাকুন।

প্রস্তুতি:

রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস পানিতে এক চামচ ইশগুল ভুষি, এক চামচ তকমা, তালমাখা ও তেঁতুলের বীজ ভিজিয়ে রাখুন। সকালে তাদের সাথে গুড় মিশিয়ে ভালো করে নেড়ে নিন। শরবত গাঢ় ও ঘন দেখালে খালি পেটে খান।

4. মেথি চা

মেথি সম্পর্কে আমরা প্রায় সবাই জানি। বিভিন্ন রোগের জন্য মেথি বিভিন্ন উপায়ে খাওয়া উচিত। রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাসে ২ চামচ মেথি ভিজিয়ে রাখুন এবং সকালে শুধু মেথির পানি পান করুন। আবার সকালে এক গ্লাস ভিজিয়ে বিকেলে মেথির পানি পান করুন। আবার দুপুরে এক গ্লাস পানিতে ২ চামচ মেথি বীজ ভিজিয়ে রাখুন এবং রাতে মেথির পানি পান করুন। অথবা চা পান করার সময় এক কাপ চায়ে ১ চামচ মেথি মিশিয়ে পান করুন। অন্তত 40 দিন এভাবে পান করুন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উপরোক্ত উপায়ে মেথির পানি পান করলে শরীরে যৌন হরমোন শক্তিশালী হবে এবং লিঙ্গ দীর্ঘক্ষণ খাড়া থাকবে। লিঙ্গ সহজে বাঁকবে না।

5. বীর্য ঘন করতে আমলকি ও তিল

আমলকি এবং তিল পুরুষের যৌন উত্তেজনা বৃদ্ধি এবং বীর্য ঘন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কালো তিল সাধারণত পুরুষদের যৌন শক্তির জন্য খুবই উপকারী। তাছাড়া ১ চামচ আমলকির রস দিনে ৩ বার খেলে পুরুষের যৌন শক্তি বাড়বে।

আমলকি ও তিলের হালুয়া তৈরির পদ্ধতিঃ

1. 100 গ্রাম আমলকি এবং 100 গ্রাম কালো তিল রোদে শুকিয়ে নিন।

2. একটি ব্লেন্ডার বা যে কোনও মেশিন দিয়ে আমলকি এবং কালো তিলের গুঁড়া তৈরি করুন।

খাওয়ার নিয়ম:

প্রতিদিন যে কোনো সময় ১/২ চামচ আলমকি ও কালো তিলের হালুয়া নিয়ে ঠাণ্ডা পানির সাথে সেবন করুন।

বীর্য আঠালো ও ঘন হবে ১০০%

এই চিকিৎসা গ্রহণ করলে আপনার বীর্য ঘন, গাঢ় এবং আঠালো হবে ১০০% গ্যারান্টি। চিন্তা করার দরকার নেই এই সবজি পদ্ধতির কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই এবং পরীক্ষা করা হয়। আমাদের উদ্দেশ্য ভেষজ দোকান, বা রাস্তা থেকে কোনো যৌন রোগের ওষুধ না কিনে বাড়িতেই স্বাভাবিকভাবে আপনার রোগ থেকে মুক্তি পান। প্রয়োজনে, এই ওষুধগুলি বাড়িতে প্রস্তুত করুন।

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *