ফোনালাপ ফাঁস করে ব্যক্তিগত অধিকার ক্ষুন্ন করা হয়েছে

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক বলেছেন, ইসলামে চারটি বিবাহের অনুমতি ছিল। দেশের আইনও একাধিক বিবাহ নিষিদ্ধ করে না। তাহলে দ্বিতীয়বার কে বিয়ে করলেন? আমি যদি স্ত্রীদের কোনও অধিকার থেকে বঞ্চিত করি তবে পরিবার আমাকে মামলা করতে পারে। তবে আজ অবধি, কেউ কি এরকম কিছু দেখাতে পারেন? “ফোন কথোপকথন ফাঁস হয়ে আমার ব্যক্তিগত অধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে,” তিনি যোগ করেছেন।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) এক ফেসবুক লাইভে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি আমার স্ত্রীকে যা বলি তা ব্যক্তিগত বিষয় তবে ফোন কথোপকথন ফাঁস হয়ে আমার ব্যক্তিগত অধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে। এটি দেশের আইনের পাশাপাশি ইসলামী আইনেও একটি অপরাধ। সুতরাং যারা আমার ব্যক্তিগত ফোন কথোপকথন ফাঁস করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেব

মামুনুল আরও বলেছেন, যেভাবে একের পর এক ব্যক্তির ব্যক্তিগত ফোনে কথোপকথন ফাঁস হচ্ছে, তা দেশের পক্ষে ভাল কিছু আনবে না। মাওলানা রফিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে তার নামে অপবাদ দেওয়া হয়েছে। ফাঁস হওয়া ফোন কথোপকথনের কোনও প্রমাণ আছে যে সে আমার বিবাহিত স্ত্রী নয়? তবে কী উদ্দেশ্যে কেবল আমার ব্যক্তিগত শব্দগুলি ফাঁস হয়েছিল?

‘সেদিন নারায়ণগঞ্জের রয়্যাল রিসর্টে যা ঘটেছিল তা কেন এই পরিস্থিতিতে আমি রিসর্টে গেলাম তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। হ্যাঁ, আমি স্বীকার করি যে সেখানে যাওয়া আমার পক্ষে বুদ্ধিমানের কাজ ছিল না। আমি কি জানি না যে দেশের মানুষের ব্যক্তিগত সুরক্ষা একেবারে চূর্ণবিচূর্ণ হয়েছিল। আমাকে আমার চরিত্র থেকে বঞ্চিত করার জন্য সন্ত্রাসীরা এই ঘটনাটি পরিকল্পনা করেছিল। ‘

Leave a Comment

betvisa