ফিতরা কত টাকা ২০২৩ | ফিতরার পরিমাণ কত ২০২৩

ফিতরা কত টাকা ২০২৩ | ফিতরার পরিমাণ কত ২০২৩,২০২৩ সালে ফিতরার হার জনপ্রতি ন্যূনতম ১১৫টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২,৬৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এই হার নির্ধারণ করেছে জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটি। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভাপতি ও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মুফতি মোহাম্মদ রুহুল আমিন। ওই বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ফিতরা কত টাকা ২০২৩

ফিতরা কত টাকা ২০২৩, গত বছর অর্থাৎ ২০২২ সালে জনপ্রতি সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ ফিতরা ছিল যথাক্রমে ৭৫ ও ২৩১০টাকা।  চলতি বছরে ন্যূনতম ১১৫টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২,৬৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। নিসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হলে মুসলিম পুরুষ ও মহিলা উভয়ের জন্য সাদাকাতুল ফিতর দেওয়া ওয়াজিব। ঈদের নামাজের আগে ফিতরা আদায় করতে হবে। ফিতরা কত টাকা ২০২৩ | ফিতরার পরিমাণ কত ২০২৩, এবারও ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক গৃহীত সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উন্নতমানের আটা,খেজুর, কিসমিস,পনির,যবসহ যে কোনো একটি দিয়ে ফিতরা দেওয়া যাবে।

এক সা পরিমাণ কত কেজি?

এক সা পরিমাণ কত কেজি?, মাঝারি দেহের ব্যক্তির হাতের চারটি আজলায় বা চারটি খাবলায় একটি ‘সা’থাকে। যার অর্থ- দুই হাতের কব্জি যুক্ত করে ০৪ খাবরিতে যে পরিমাণ খাবার উঠে আসে তা হল এক ‘সা’। এক সা পরিমাণ কত কেজি?, আরবীতে صاع ‘সা’ একটি পরিমাপক পাত্র যা শস্য পরিমাপের জন্য ব্যবহৃত হয়।

যদি এক-সা স্কেল ব্যবহার করে বিভিন্ন ফসলকে কিলোগ্রামে ওজন করা হয়, তাহলে প্রতিটি ফসলের ওজন অন্যান্য ফসলের ওজনের চেয়ে কম/বেশি হবে।

ফিতরার ক্ষেত্রে গোটা দানা দান করা ওয়াজিব। ফিতরা কত টাকা ২০২৩ | ফিতরার পরিমাণ কত ২০২৩, যে স্বা‘ বা পাত্র নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ব্যবহার করেছেন সে স্বা অনুযায়ী।সাধারণত দুই হাত চার মুষ্টি ভরা খাদ্যশস্য এক ‘সা’ পূর্ণ করে।এক সা পরিমাণ কত কেজি?,  মেট্রিক পদ্ধতিতে ওজন করা হলে এটি প্রায় ৩ (তিন) কিলোগ্রাম।

নেসাব পরিমাণ সম্পদ কত?

নেসাব পরিমাণ সম্পদ কত?, নিসাবের পরিমাণ সম্পদ সাড়ে সাত ভরি স্বর্ণ বা সাড়ে বায়ান্ন ভরি রুপা বা সমপরিমাণ নগদ এবং পণ্যদ্রব্যের পরিমাণ সম্পত্তি। যদি কোন ব্যক্তি এই পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়, তাহলে তার নিজের এবং তার পরিবারের পক্ষ থেকে সাদাকাতুল ফিতর দেওয়া ওয়াজিব।

এ বছরের ফিতরা কত জানাল ইসলামিক ফাউন্ডেশন

এ বছরের ফিতরা কত জানাল ইসলামিক ফাউন্ডেশন, এ বছর ফিতরার হার জনপ্রতি সর্বোচ্চ ২ হাজার ৬৪০ টাকা এবং সর্বনিম্ন ১১৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। ফিতরা কত টাকা ২০২৩ | ফিতরার পরিমাণ কত ২০২৩, এ বছরের ফিতরা কত জানাল ইসলামিক ফাউন্ডেশন, সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় ফিতরা নির্ধারণ কমিটির সভাপতি ও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মুফতি মোহাম্মদ রুহুল আমিন।

বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় যে,ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক ময়দা,যব,কিসমিস,খেজুর এবং পনিরের মতো যেকোনো পণ্য দ্বারা ফিতরা প্রদান করা যেতে পারে। ফিতরা কত টাকা ২০২৩ | ফিতরার পরিমাণ কত ২০২৩, গম বা আটা দ্বারা ফিতরা আদায় করলে ১ কেজি ৬৫০ গ্রাম বা এর বাজারমূল্য ১১৫ (একশ পনেরো)টাকা দিতে হবে। এ বছরের ফিতরা কত জানাল ইসলামিক ফাউন্ডেশন, বার্লি সংগ্রহ করলে ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম বা এর বাজার মূল্য ৩৯৬ টাকা,কিসমিস সংগ্রহ করলে ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম বা এর বাজার মূল্য ১ হাজার ৬৫০ টাকা,৩ কেজি ৩০০ গ্রাম বা সংগ্রহ করলে এর বাজার মূল্য ১ হাজার ৯৮০ টাকা। খেজুর ও পনির ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম বা এর বাজার মূল্য ২ হাজার ৬৪০ টাকা ফিতরা দিতে হয়।

কিভাবে ফিতরা নির্ধারণ করা হয়?

কিভাবে ফিতরা নির্ধারণ করা হয়?, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সংগৃহীত আটা, যব, খেজুর, কিসমিস ও পনিরের বাজার মূল্যের ভিত্তিতে এই ফিতরা নির্ধারণ করা হয়েছে। মুসলমানগণ তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী উপরোক্ত পণ্য বা বাজারমূল্য থেকে সাদাকাতুল ফিতর আদায় করতে পারেন। কিভাবে ফিতরা নির্ধারণ করা হয়?, উপরোক্ত পণ্যগুলির স্থানীয় খুচরা বাজারে দামের তারতম্য রয়েছে। তদনুযায়ী স্থানীয় হারে অর্থ প্রদান করা হলেও ফিতরা আদায় করা হবে।

Leave a Comment