পরকীয়ার জেরেই স্বামীকে খুন

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে স্বামীকে শ্বাসরোধে হত্যা করার অভিযোগে পুলিশ স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে। বুধবার রাতে পার্বতীপুর শহরের চান্দোপাড়ায় এই মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। জড়িত থাকার অভিযোগে তার স্ত্রী শরিফা বেগমকে বৃহস্পতিবার সকালে ভুক্তভোগীর বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, ২০১৩ সালের ৩ অক্টোবর একই উপজেলার রামপুর ইউপির ভোটগাছ গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে শরীফা বেগমের সাথে পার্বতীপুর শহরের চান্দোপাড়ার জহির উদ্দিনের ছেলে শাহজাদ হোসেনের সাথে বিয়ে হয়। তবে তাদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এটি শরীফার চতুর্থ বিবাহ এবং শাহজাদ হোসেনের তৃতীয় বিবাহ। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে কোনও বোনিবান ছিল না। প্রতিদিন দুজনের মধ্যে ঝগড়া চলত।

দুই মাস আগে, শাহজাদ হোসেন সহায়ক হিসাবে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গায় একটি অটোরিস মিলে যোগদান করেছিলেন। ১৪ ই এপ্রিল সকালে শাহজাদ কাজ থেকে নিজের বাড়ি চান্দোপাড়ায় এসেছিলেন। এদিন বিকেলে তার স্ত্রী শরিফা বেগম হালুয়ার সাথে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খেতে দিয়েছিলেন। কিছুক্ষণ পর তিনি গভীর ঘুমে পড়লেন। পরে ঘুমন্ত অবস্থায় শরিফা তাকে শ্বাসরোধ করে।

পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মোখলেছুর রহমান জানান, স্বামী হত্যার অভিযোগে বৃহস্পতিবার সকালে স্ত্রী শরীফা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি হত্যাকাণ্ডে জড়িত বলে স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দিনাজপুর মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি বলেছিলেন যে হত্যার পিছনে মূল কারণ ছিল তার স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক

Leave a Comment

betvisa