দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা

দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা,বিয়ের শুরুর দিকে সব স্বপ্নের মত লাগে, কিন্তুু একটা সময় গিয়ে অবস্থা একইরকম থাকে না। আর এটাই স্বাভাবিক। একটা সময়ে গিয়ে যখন দেখলাম, অকারনেই ঝগড়া হচ্ছে, অনেক চেষ্টা করার পর ও কিছু একটা না একটা সমস্যা হচ্ছে, ঝাঁপায় পড়ে তখন স্ত্রীর দায়িত্ব কর্তব্য, ভালো স্ত্রীর গুন, এসব টপিকের উপর ভিডিও, লেকচার সিরিজ , প্রবন্ধ গিলতে লাগলাম। কিন্তুু কোথাও একদম প্রাকটিক্যাল ওয়ে গুলা খুঁজে পেলাম না।

দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা

দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা,স্বামী কে শ্রদ্ধা করতে হবে, আদেশ পালন করতে হবে… এমন অনেক নির্দেশনা পেলাম, কিন্তুু কি করলে শ্রদ্ধা প্রকাশ পাবে, আর আমার কি লাভ হবে-সেই বিষয়ে খুব বেশি পেলাম না। হয়ত, আমি খোঁজার মত খুঁজতে পারি নি। হয়ত, অনেক কিছুই না বুঝেই করতেসি, যেটা আসলে স্বামী কে অসম্মান করা হচ্ছে।
তো আসলে , খুব বেশি লাভ হচ্ছিল না। বুঝতে পারতাম যে ওয়াইফ হিসেবে, ১০ এ ০ আমি।

স্বামীর আনুগত্যের মাধ্যমেই সম্ভব

স্বামীর আনুগত্যের মাধ্যমেই সম্ভব, এখনও খুব যে বুঝে গেছি সব তা না, কিন্তুু সবচাইতে ইম্পর্ট্যান্ট যেটা বুঝেছি , তা হলো, আমি তাকে শ্রদ্ধা করবো আমার নিজের জন্যই। একটা স্ত্রী যা চায় , স্বামীর care বা attention, তা স্বামীর আনুগত্যের মাধ্যমেই সম্ভব । আর যা যুদ্ধ করেও পাওয়া সম্ভব না, সেটা স্বামীর কাছ থেকে আনুগত্য আর ভালোবাসার মাধ্যমে পাওয়া সম্ভব ।

নারীদের কে ফিতরাত গত ভাবেই আল্লাহ্ সুবহানাহু তাআলা এভাবেই তৈরি করেছেন। দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা , যদিও স্বামীকে কতৃত্ব দিয়েছেন স্ত্রীর উপর, আল্লাহ্ প্রদত্ত নারীসুলভ আচরণ দ্বারা খুব সহজেই একজন স্ত্রী তার স্বামীর মনে রাজত্ব করতে পারে। তাও সব চেয়ে সহজ অস্ত্র দিয়েই। সংসারের সুখ শান্তি টাও এটার উপর ই নির্ভরশীল।( যদিও এখনও সংসারে ঐভাবে প্রবেশ করি নি।

আর তার চেয়েও বড়ো কথা , মানুষ কে সন্তুষ্ট করা অসম্ভব , কিন্তুু আমাদের রব কে সন্তুষ্ট করা সহজ। আমি স্বামীর সন্তুষ্টি এজন্যই আশা করবো, যাতে আল্লাহ্ আমার উপর সন্তুষ্ট থাকেন।

স্বামীর সন্তুষ্টি তেই রবের সন্তুষ্টি

স্বামীর সন্তুষ্টি তেই রবের সন্তুষ্টি, আমি এজন্যই তার আনুগত্য করবো কারণ আমার রব নির্দেশ দিয়েছেন । আর আল্লাহর নির্দেশিত পথে চললেই শান্তি আর শান্তি। আমাদের মেইন লক্ষ্য থাকবে আমাদের রবের সন্তুষ্টি, তাহলে আমাদের রব ই তার বান্দা কে আমার উপর সন্তুষ্ট করে দিবেন… আবার স্বামীর সন্তুষ্টি তেই রবের সন্তুষ্টি।

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন, যে মহিলা এমন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করবে যে, তার স্বামী তার প্রতি সন্তুষ্ট, সে জান্নাতে প্রবেশ করবে। (তিরমিযী শরীফ)

সহজেই জান্নাত কামাই করার চেষ্টা

সহজেই জান্নাত কামাই করার চেষ্টা , একজন মুসলিম নারী হবে অত্যন্ত বিচক্ষণ, জ্ঞানী। দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা, সে সহজাত আল্লাহ্ প্রদত্ত বৈশিষ্ট্য কে কাজে লাগিয়েই , সহজেই জান্নাত কামাই করার চেষ্টা করবে। আর পাশাপাশি তার জীবন টাও মধুর মতই মিষ্টি লাগবে ইন শা আল্লাহ।
আর আল্লাহর ভালো বান্দা হাওয়া ছাড়া ভালো স্ত্রী হওয়া টা কল্পনার শামিল। যে তার রবের হকের প্রতি উদাসীন সে স্বামীর হক আদায় করবে কিভাবে…..

আল্লাহর সন্তুষ্টি

আল্লাহর সন্তুষ্টি প্রধান লক্ষ্য হলেই শুধুমাত্র স্বামীর সাময়িক রাগের সময় কষ্টের আচরণের মুখেও পাহাড়ের মত অটল থেকে নিজ দায়িত্ব পালন করে যাওয়া সম্ভব। দাম্পত্য জীবন নিয়ে কিছু কথা, তার পর কিন্তু আল্লাহ্ ই আপনার স্বামীর মন নরম করে দিবেন, নিজে থেকেই আপনার ভালোবাসার কাছে মাথা পেতে দিবে সে।
ভোগবাদী সমাজের , আমি কি পেলাম, কি দিলাম .. এসব চিন্তা কখনোই একজন মুসলিমাহ কে টলাতে পারবে না ইন শা আল্লাহ্। নিশ্চয়ই বিজয় তো এভাবেই আসে……..!

 

©

Leave a Comment