জামিনে মুক্তি পেলেন সাংবাদিক

শুক্রবার বিকেলে দৈনিক জনকণ্ঠ ও বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার লালমনিরহাট সংবাদদাতা জাহাঙ্গীর আলম শাহীনকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে জামিন চেয়েছিলেন। পুলিশ রিপোর্ট জমা না দেওয়া পর্যন্ত বিজ্ঞ আদালত জামিন মঞ্জুর করেন।

লালমনিরহাট কোট থানার উপ-পরিদর্শক মুসা আলম জানান, আদালতে শুনানি শেষে লালমনিরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আফাস উদ্দিন সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম শাহীনকে ২ হাজার টাকার মুচলেকায় জামিন মঞ্জুর করেছেন।

জাহাঙ্গীর আলম শাহিনের পক্ষে জামিন শুনানি পরিচালনা করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি প্রবীণ আইনজীবী মতিয়ার রহমান।

সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম শাহিনের বাবা আবদুস সালাম ন্যায়বিচার পাওয়ার জন্য বিজ্ঞ আদালত, আইনজীবী ও মিডিয়া কর্মীদের ধন্যবাদ জানান এবং ঘটনার যথাযথ তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

অ্যাড। জবাবে মতিয়ার রহমান বলেছিলেন যে সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম শাহিন একজন প্রতিষ্ঠিত মিডিয়া কর্মী এবং কলেজের শিক্ষক। একজন প্রগতিশীল সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ফেনসিডিলের বোতল উদ্ধারের ঘটনাটি স্রেফ সাজানো। যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত জামিন মঞ্জুর করেন। এর মাধ্যমে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

জামিনে মুক্তি পেয়ে সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম শাহীন আদালত চত্বরে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছিলেন, “আমি বিজ্ঞ আদালত, আইনজীবী এবং মিডিয়া কর্মীদের বন্ধুদের কৃতজ্ঞ।” সত্য এই জামিনের মাধ্যমে জিতেছে।

Leave a Comment