জাকারবার্গ আগামী বছরের মাঝামাঝির আগে অফিসে ফিরতে চান না

ফেসবুকে মার্ক জাকারবার্গের সাম্প্রতিক পোস্টগুলো দেখলেই ব্যাপারটা আঁচ করা যায়। বাড়িতে বেশ আনন্দে আছেন তিনি। কখনো মেয়েকে নিয়ে গেম খেলছেন তো কখনো তিরন্দাজের ভূমিকায় একে একে লক্ষ্যভেদ করছেন। বাড়ির আয়েশি জীবন ছেড়ে কর্মস্থলে যাওয়ার ছিটেফোঁটা লক্ষণও তাঁর মধ্যে নেই। আর তা তিনি নিজেই পরিষ্কার করেছেন।

কর্মীদের পাঠানো বার্তায় ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) গতকাল বুধবার বলেছেন, তিনি আগামী বছরের মাঝামাঝির আগে অফিসে ফিরতে চান না। কাজ করে যাবেন, তবে অফিসের বাইরে থেকে। কর্মীদেরও তিনি সে স্বাধীনতা দিচ্ছেন। অর্থাৎ ২০২২ সালের মাঝামাঝির আগে অফিসে এসে কাজ করা ফেসবুক-কর্মীদের জন্য বাধ্যতামূলক নয়। ফেসবুকের এক মুখপাত্র সিএনএনকে তা নিশ্চিতও করেছেন। সত্যিই, সিইও বটে!

জাকারবার্গ কর্মীদের লিখেছেন, ঘরে থেকে কাজ করায় দীর্ঘ মেয়াদে ভাবনার সময় ও সুযোগ পেয়েছি আমি। আবার পরিবারের সঙ্গেও বেশি সময় কাটিয়েছি। এটা আমাকে যেমন আনন্দ দিয়েছে, তেমনই কাজে দক্ষও করেছে।

ফেসবুকের পক্ষ থেকে গতকাল বুধবার বলা হয়, কাজের ধরন বুঝে প্রতিষ্ঠানের সব স্তরের কর্মীদের ঘরে থেকে কাজ চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দেবে ফেসবুক। কোনো কর্মী অফিসে এসে কাজ করতে চাইলে তাতেও সমস্যা নেই তবে অন্তত অর্ধেক সময় অফিসের বাইরে থেকে কাজ করায় উৎসাহিত করা হবে। প্রয়োজনে দেশের বাইরে থেকে কাজ চালিয়ে যাওয়ার সুবিধাও দেবে ফেসবুক।

জাকারবার্গ অবশ্য আগেই বলেছিলেন, তিনি চান পরবর্তী ১০ বছরের মধ্যে ফেসবুকের মোট কর্মীর অন্তত অর্ধেক অফিসের বাইরে থেকে নিয়মিত কাজ করুক। হয়তো সে লক্ষ্যেই এগোচ্ছেন।

Leave a Comment