জরায়ু ক্যান্সারের লক্ষণ ও প্রতিকার

জরায়ু ক্যান্সার বা জরায়ু ক্যান্সারের পর্যায়গত লক্ষণগুলি একজন ব্যক্তির থেকে অন্যব্যক্তিতে ভিন্নভাবে পরিবর্তিত হতে পারে এবং এটি সাধারণত ধীরে ধীরে উন্নতি করতে পারে। এক্ষেত্রে, জরায়ু ক্যান্সারের সাধারণ লক্ষণ ও প্রতিকারগুলি নিম্নলিখিত হতে পারে:

ট্রিপল নেগেটিভ ক্যান্সার: জরায়ু ক্যান্সারের একটি প্রকার হতে পারে যা প্রোগেসিভ ক্যান্সার সম্পর্কে আপনাকে সূচিত করতে পারে না। কোনও শারীরিক লক্ষণ থাকতে পারে না এবং স্ক্রিনিং টেস্টগুলি প্রমাণ করতে পারে না।

মাংসপেশী ব্রেস্ট ক্যান্সার: জরায়ু এলাকায় বৃদ্ধিশীল ক্যান্সারের লক্ষণগুলি হতে পারে মাংসপেশী ব্রেস্ট এলাকায় একটি গোঁফট বা লাম্প অনুভব করা, গায়ে জ্বলজ্বল বা ব্রেস্টের উপর একটি নোটিসকৃত পরিবর্তন, অস্বাভাবিক নিপ্পল বা আঙ্গুলের উত্তেজনা, জ্বলজ্বল বা জ্বলজ্বল ব্রেস্ট বা তাপমাত্রা পরিবর্তন।

উচ্চ ক্যান্সার ব্রেস্ট: জরায়ু ব্রেস্ট ক্যান্সারের সাধারণ লক্ষণগুলি একটি অস্বাভাবিক ব্রেস্ট লাম্প বা গোঁফটের একটি বৃদ্ধি, সাধারণত পরিবর্তিত নিপ্পল বা আঙ্গুলের উত্তেজনা, ব্রেস্টের উপর ত্বকের পরিবর্তন, সামান্য বা অস্বাভাবিক রং সম্পর্কিত অংশ, জ্বলজ্বল বা জ্বলজ্বল ব্রেস্ট বা তাপমাত্রা পরিবর্তন।

কলোরেক্টাল ক্যান্সার: জরায়ু কলোনে বা রেক্টামে ক্যান্সারের লক্ষণগুলি হতে পারে পেটের ব্যথা, স্বাভাবিক বা দ্রুত পাকস্থলী পদার্থ বা বায়ুবাহিত বিষণ্নতা, পাতলা পায়খানা বা পায়খানার বন্ধ হওয়া, খুনসংক্রান্ত পায়খানা, মলমূত্র বা রক্তমিশ্রিত পায়খানা, পেটের পাতলা হওয়া এবং খুনের কালো বা সুস্থ রংময় পায়খানা।

জরায়ু প্রস্তত পাঞ্জাবী ক্যান্সার: জরায়ু প্রস্তত পাঞ্জাবী ক্যান্সার একটি জরায়ু এলাকার ক্যান্সারের প্রকার। এর লক্ষণগুলি হতে পারে পেটে ব্যথা, পেটে স্ফীতি বা জ্বলজ্বল অনুভব, পেটের আঁচ বা উত্তেজনা, খুনসংক্রান্ত পায়খানা, পেটে গ্যাসের সমস্যা, পেটের বিস্তারিত অস্বাভাবিকতা এবং পেটের উপর স্নায়ুসংক্রান্ত সমস্যা।

মনে রাখবেন যে, এই লক্ষণগুলি কেবলমাত্র জরায়ু ক্যান্সারের সুপারিশকৃত লক্ষণগুলির উদাহরণ এবং এগুলি অন্যান্য সমস্যার কারণেও সৃষ্ট হতে পারে। তাই, যদি আপনি যেকোনো লক্ষণ অনুভব করেন, তাহলে সম্ভবতঃ সবচেয়ে ভাল হবে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে। ডাক্তার আপনাকে পরীক্ষা ও পরীক্ষা প্রেসক্রিপশনের মাধ্যমে আরও নির্দিষ্ট তথ্য সরবরাহ করতে পারবেন।

 

 

জরায়ু ক্যান্সারের সাধারণ প্রতিকার ও লক্ষণগুলির পাশাপাশি ক্যান্সারের বিকল্প লক্ষণগুলিরও উল্লেখ করা যায়। কিছু জরায়ু ক্যান্সারের সাধারণ প্রতিকার ও লক্ষণগুলি নিম্নলিখিতঃ

ব্রেস্ট ক্যান্সার:
স্তনস্থানে বা স্তনগ্রস্থানে গোঁফট বা গুদামে লাম্প বা নোটিসকৃত বৃদ্ধি অনুভব করা।
প্রেরণশীল বা বিচ্ছিন্ন নিপ্পল।
স্তনের ত্বকের পরিবর্তন, অস্বাভাবিক রঙ, পাতলা ত্বকের রঙবিশিষ্ট অংশ।
আঁচ, জ্বলজ্বল, বা ব্রেস্টের বৃদ্ধি সম্পর্কিত অনুভব।
অক্সিজেনপূর্ণ বা খুব বড় ব্রেস্টের জন্য স্তনের মাধ্যমে দূরবর্তী পুরুষের জন্য বিশেষ মামলা অনুভব করা।

প্রস্তত পাঞ্জাবী ক্যান্সার:
পেটে ব্যথা, স্ফীতি বা জ্বলজ্বল অনুভব করা।
পাতলা পায়খানা বা পায়খানার বন্ধ হওয়া।
খুনসংক্রান্ত পায়খানা।
পেটে গ্যাস, পেটের বিস্তারিত অস্বাভাবিকতা, উত্তেজনা বা আঁচ অনুভব করা।
পেটের স্নায়ুসংক্রান্ত সমস্যা।

কলোন ক্যান্সার:
পেটে ব্যথা, স্ফীতি বা জ্বলজ্বল অনুভব করা।
পেটে দ্রুত পাকস্থলী পদার্থ বা বায়ুবাহিত বিষণ্নতা।
পাতলা পায়খানা বা পায়খানার বন্ধ হওয়া।
খুনসংক্রান্ত পায়খানা, মলমূত্র বা রক্তমিশ্রিত পায়খানা।
পেটের পাতলা হওয়া, পেটে গ্যাস সমস্যা।
মনে রাখবেন যে, এই লক্ষণগুলি কেবলমাত্র জরায়ু ক্যান্সারের সাধারণ প্রতিকার ও লক্ষণগুলির উদাহরণ এবং এগুলি অন্যান্য সমস্যার কারণেও সৃষ্ট হতে পারে। তাই, যদি আপনি যেকোনো লক্ষণ অনুভব করেন, তাহলে সম্ভবতঃ সবচেয়ে ভাল হবে ডাক্তারের পরামর্শ নিত ।

Leave a Comment