জঙ্গিবাদের নামে কিছু মানুষ ধর্মকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে

মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সারাদেশে সকল উপজেলায় ৫৬০টি মডেল মসজিদ ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করবে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকালে গণভবন থেকে ৫০টি মডেল মসজিদের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় তিনি জঙ্গিবাদের পথ থেকে যুব সমাজকে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ধর্মের নামে কিভাবে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হচ্ছে, মানুষ খুন করা হচ্ছে। আমার প্রশ্ন, যারা মানুষ খুন করে তাদের কজন বেহেশতে গেছে? কেউ বলতে পারবে? মুষ্টিমেয় কিছু জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকায় ধর্মের বদনাম হচ্ছে। এজন্য ধর্মকে অপরাধী করা যায় না। এসময় যুবসমাজকে সর্বনাশা পথ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

বঙ্গবন্ধু কন্যা ইসলাম প্রচার ও প্রসারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধু সকল ধর্মের মর্যাদা দিয়েছেন। তেমনি ইসলাম শান্তির ধর্ম বিশ্বাস করে ইসলামের উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। ইসলাম ধর্ম প্রচারে ইসলামিক ফাউন্ডেশন করেছেন। জাতির পিতার উদ্যোগে বাংলাদেশ বিশ্ব ইজতেমা স্থান নির্ধারণ হয়। তিনি দেশকে ওআইসিভুক্ত করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ সরকারের নেওয়া পদক্ষেপ তুলে ধরে বলেন, ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে বায়তুল মোকাররমের মসজিদের উন্নয়ন করি। মিনার তৈরি করি। ডিজিটাল কোরআন শরীফ তৈরি করি বাংলা ইংরেজি ভার্সনসহ।

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *