চোখের পাতা লম্বা ও ঘন করার ঘরোয়া উপায়

মুখাবয়ব মানুষের সৌন্দর্যের মূলে আকর্ষণীয় । এসব মুখের সৌন্দর্য বাড়ায় নাক, ঠোঁট, চোখ ব্রু । তবে চোখের সৌন্দর্যের মূলে পাতা । আর লম্বা চোখের পাতা কে না চায় ঘন, কালো ? সাধারণত সবার হয় না ঘন ও লম্বা চোখের পাতা । অনেকে ব্যবহার করে থাকেন নকল চোখের পাতা চোখের সৌন্দর্য বাড়াতে । ঘন, কালো ও লম্বা চোখের পাতা কিন্তু কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে সহজেই মিলতে পারে ।

১. অলিভ অয়েল: অলিভ অয়েল ত্বকের যত্নে বহুল ব্যবহৃত উপাদান হিসেবে ব্যবহার হয় । মিলবে ঘন ও লম্বা চোখের পাতা প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে মাশকারা ব্রাশে করে চোখের পাতায় অলিভ ওয়েল লাগালে মিলবে অনেক সুফল।

২. ক্যাস্টর অয়েল: ক্যাস্টর অয়েল চোখের পাতা ঘন করতে অনেক উপকারী । যা চোখের পাতা বৃদ্ধি করতে কার্যকরী এতে রয়েছে ভিটামিন, প্রোটিন ও ওমেগা-৬ ফ্যাট । তবে এটি চোখের পাতা অনেক দ্রুত লম্বা ও ঘন করতে পারে । ক্যাস্টর অয়েল তুলার সাহায্যে লাগালে মিলবে উপকার রাতে ঘুমানোর আগে চোখের পাতায় হালকা গরম করা। তবে এর সঙ্গে অলিভ অয়েল মিশিয়ে চোখের পাতায় লাগাতে মিলতে পারে আরও ভালো সুফল।

৩. অ্যালোভেরা: চোখের পাতায় সারারাত লাগিয়ে রাখতে হবে মাশকারা ব্রাশের মাধ্যমে অ্যালোভেরা জেল । সকালে ধুয়ে ফেললে মিলবে ভালো ফল হালকা গরম ও ঠাণ্ডা পানি মিশিয়ে। এক চামচ জোজোবা অয়েল ও দুই ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে প্রতিদিন দুবার লাগাতে পারেন এ ছাড়া এক চা চামচ অ্যালোভেরা জলের সঙ্গে । তবে এটি ১০-১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেললে মিলবে উপকার।

৪. পেট্রোলিয়াম জেলি: পেট্রোলিয়াম জেলি সারারাত লাগিয়ে রাখলেও মিলবে ভালো ফল মাশকারা ব্রাশের মাধ্যমে চোখের পাতায় । তবে সকালে হালকা গরম ও ঠাণ্ডা পানি মিশিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

৫. ম্যাসাজ: কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করলে মিলতে পারে ঘন ও লম্বা চোখের পাতা অলিভ অয়েল বা নারিকেল তেল কয়েক ফোঁটা নিয়ে আঙুলের সাহায্যে চোখের পাতা ও চোখের চারপাশে ধীরে ধীরে।

৬. ডিম: এক চা চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে ঘন প্যাক তৈরি করতে হবে ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে । চোখের পাপড়িতে লাগিয়ে তা ১০-১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিলেই পাওয়া যাবে উপকার ইয়ার বাডের সাহায্যে প্যাকটি ।

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *