ঘরে ওঠার আগেই ঝড়ে উড়ে গেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার চাল

লালমনিরহাট সদর উপজেলার মুঘলহাট ইউনিয়নের কোদাল খাতা গ্রামে গৃহহীনদের আবাসনের দ্বিতীয় পর্বের ১০ টি ইউনিটের কাজ শেষ হয়েছে। এরপরে সুবিধাভোগীদের ঘরের নথি ও চাবি হস্তান্তর করা হলেও বিভিন্ন সমস্যার কারণে সুবিধাভোগীরা এসব বাড়িতে আসেনি।

এদিকে, শনিবার (১৮ এপ্রিল) মধ্যরাতে ওই বাড়ির হালিমাকে দেওয়া বাড়ির চাল উঠোনে উড়িয়ে দেওয়া হয়।

ঘটনাস্থলে দেখা যায় ঝড়ের জেরে বাড়ির বারান্দার তিনটি ধাপের সাথে চালও উল্টে গেছে। পরে লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে দ্রুত সংস্কার কাজ শুরু করা হয়।

উপকারভোগীরা জানিয়েছেন যে এখানে ১০ টি বাড়ি যাওয়ার কোনও রাস্তা ছিল না, জল সরবরাহ ছিল না এবং বিদ্যুতের সংযোগ ছিল না। এই পরিস্থিতিতে প্রতিটি বাড়ির জন্য 1 লক্ষ 91 হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়ে নির্মিত বাড়ির দলিলগুলি এবং কীগুলি বোঝার পরে, এক মাস এমনকি কেউ বাড়িতে আসেনি। ভুক্তভোগীদের কাজের মানের সম্পর্কেও অভিযোগ রয়েছে।
লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায় সাময়বাদকে জানান, ঝড়ের কারণে ধান উড়ে যাওয়া স্বাভাবিক। তবে কাজের মান নিয়ে কোনও গাফিলতি নেই।
বাকি সমস্যাগুলি এক সপ্তাহের মধ্যেই সমাধান হয়ে যাবে, তিনি আরও বলেন, তিনি বিদ্যুত সংযোগের বিষয়ে পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছেন। পাশাপাশি আবাসনের আশেপাশের জমির মালিকদের সাথে রাস্তার বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই সমস্যাগুলি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সমাধান করা হবে।

Leave a Comment