কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয় মৃত্যুর পর?

কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয় মৃত্যুর পর?

কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয় মৃত্যুর পর? সবকিছুরই যেমন শুরু আছে পৃথিবীতে , তেমনি তার শেষও আছে এই পৃথিবীতে । কিন্তু যখন কিছু মানুষ অনেককিছু পেয়ে বসে তখন সে শেষ নামক শব্দটাকে ভুলে যায়। আর তখন এই পৃথিবীতে মানুষে-মানুষে হানাহানি আর কোন্দলের সৃষ্টি হয়। সৃষ্টি শব্দটার সাথে যেমন শুরু শব্দটার অনেক মিল আছে, শেষ শব্দটার সাথেও তেমনি মৃত্যু শব্দটার অনেক মিল।

আবার এই মৃত্যুর পর রীতি-নীতিরও অভাব নেই। কবরে নিয়ে দাফন সম্পন্ন করার পুর্বে শেষ গোসলের রীতি-নীতি অবশ্যই পালন করতে হয়। তবে এই রীতি-নীতির মাঝেও পালন করার মত অনেক কিছু রয়েছে।

মৃতের গোসলের পানিতে বড়ই পাতা দেয়া শরীয়ত সম্মত। অনেকে অবশ্য মৃতের গোসলের পানিতে বড়ই পাতা দেয়াকে ওয়াজিব বলে থাকে তবে এটা কিন্ত ওয়াজিব নয়। আলেমগণ হাদিসের নির্দেশকে মুস্তাহাব বলেছেন। কারণ বড়ইপাতা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য খুব কার্যকরী।

কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয় ইসলামিক ব্যাখ্যা

বড়ইপাতা না পাওয়া গেলে সাবান জাতীয় কিছু ব্যবহার করাই যথেষ্ট। হযরত ইসমাঈল ইবনে আবদুল্লাহ (রহ) উম্মে আতিয়্যা আনসারী (রা) থেকে বর্ণিত, হযরত নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -এর কন্যা যায়নাব (রা)-এর ইন্তিকাল হলে তিনি আমাদের কাছে এসে বললেন : তোমরা তাহাকে তিন, পাঁচ প্রয়োজন মনে করলে তার চাইতে অধিকবার বড়ই পাতাসহ পানি দিয়ে গোসল দাও।

শেষবার কর্পূর বা (তিনি বলেছেন) কিছু কর্পূর ব্যবহার করবে। তোমরা শেষ করে আমাকে জানাও। আমরা শেষ করার পর তাকে জানালাম। তখন তিনি তাঁর চাদরখানা আমাদের দিয়ে বললেন: এটি তাঁর গায়ের সাথে জড়িয়ে দাও।

‘প্রত্যেক প্রাণীকে তার মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে’ মহান আল্লাহ কুরআনুল কারিমের একাধিক আয়াতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মানুষের জীবনে যে ঘটনা সুনিশ্চিত ঘটবে, তা হলো ‘মৃত্যু’। আর ইসলামী ধর্ম অনুযায়ী, মৃত ব্যক্তিকে গোসল দেয়া ফরজে কিফায়া। কেউ কেউ ওয়াজিব বলেছেন। তবে মৃতকে সঠিকভাবে গোসল দেয়ার বেশ কিছু পদ্ধতি রয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখ্য হলো বড়ই পাতা ও সাবান মিশ্রিত হালকা গরম পানি দ্বারা মৃত ব্যক্তির মাথা ও দাড়ি ধৌত করা।

কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয়? এর পেছনে কারণ কি?
ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী, মৃতের গোসলের পানিতে বড়ই দেয়া শরীয়ত সম্মত একটা রীতি। অনেকে অবশ্য এটাকে ওয়াজিব বলে থাকে তবে এটা ওয়াজিব নয়। আলেমগণ হাদিসের নির্দেশকে মুস্তাহাব বলেছেন। কারণ বড়ইপাতা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য খুব কার্যকরী। বড়ইপাতা না পাওয়া গেলে সাবান বা এ জাতীয় কিছু ব্যবহার করাই যথেষ্ট।

বর্তমান আধুনিক বিজ্ঞান এই বড়ই পদ্ধতির সাথে একমত প্রকাশ করেছে। বিজ্ঞানীরা তাদের গবেষণায় দেখেছে, বড়ই পাতায় রয়েছে বেশ কিছু এন্টিসেপটিক গুনাগুন। বড়ই পাতা পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখলে একধরনের আঁঠালো প্রাকৃতিক নির্যাস পানির সাথে মিশে যায়, যা মানব শরীরকে জীবানুমুক্ত করার একটি এন্টিসেপটিক হিসেবে দুর্দান্ত কাজ করে। যা প্রায় ১৪০০ বছর আগে আমাদের প্রিয় নবী মুহাম্মদ (সা:) বলে গিয়েছিলেন।

কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয়
শুধু হজে অংশগ্রহণকারী ব্যক্তির ব্যাপারেই প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ ঘোষণা দেননি বরং তিনি তাঁর মেয়ে হজরত জায়নাব রাদিয়াল্লাহু আনহার মৃত্যুর পর তাকেও বরই পাতা মেশানো পানি দিয়ে গোসল দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

হাদিসের নির্দেশনা অনুযায়ী মৃতব্যক্তির গোসলের পানিতে বড়ই দেয়া ইসলামি শরিয়ত সম্মত একটা রীতি। কেননা বড়ই পাতা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার জন্য খুব কার্যকরী। যদি বড়ই পাতা না পাওয়া যায় তবে সাবান বা এ জাতীয় কিছু ব্যবহার করাই যথেষ্ট। আর বড়ই পাতা মেশানো পানিতে গোসল করানো হলে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নাত আদায় হয়।

 

কেন বড়ই পাতা দিয়ে গোসল দেয়া হয়র কারণ
বিজ্ঞানের গবেষণা থেকে প্রমাণিত যে, বড়ই পাতায় বেশ কিছু এন্টিসেপটিক উপাদান রয়েছে। যা পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখলে বা পানিতে দিয়ে হালকা গরম করলে বড়ই পাতা থেকে এক ধরনের আঁঠালো নির্যাস পানির সঙ্গে মিশে যায়। আর এ নির্যাসগুলো মানুষের শরীরকে জীবানুমুক্ত করার কার্যকরী এন্টিসেপটিক হিসেবে কাজ করে। সহজে এ শরীরে যেমন পোকা-মাকড় আক্রমণ করতে পারে না আবার এ দেহে সহজে পচন ধরে না। প্রায় দেড় হাজার বছর আগে এ কারণেই বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মৃত ব্যক্তিকে বড়ই পাতা মেশানো পানি দিয়ে গোসল করানোর কথা বলেছেন।

যেহেতু বড়ই পাতা গরম পানিতে দিলে পানিটা বেশি স্বচ্ছ, পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত হয় সেজন্য। কারণ পানিতে অনেক সময় জীবাণু থাকে। আর বড়ই পাতায় ঐসব জীবাণু ধ্বংসের উপাদান আছে। এ ক্ষেত্রে বড়ই পাতাই দেওয়া শর্ত নয়। অন্য কোনো পাতা বা মেডিসিন ব্যবহার করারও অবকাশ আছে। কিন্তু বড়ই পাতা ব্যবহার করা মুস্তাহাব এবং তা কুরআন-সুন্নাহ সমর্থিত।

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, মৃত মানুষকে বড়ই পাতা মেশানো হালকা গরম পানি দিয়ে গোসল দেয়া। এতে মৃতের লাশ যেমন থাকবে জীবানুমুক্ত পরিচ্ছন্ন। আবার হাদিসের নির্দেশনার ওপরও হবে যথাযথ আমল।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে হাদিসের ওপর আমল করার তাওফিক দান করুন। মানুষের মৃত্যুর পর বড়ই পাতা মেশনো হালকা গরম পানি দিয়ে উত্তম পদ্ধতিতে গোসল দেয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন

রংপুর ডেইলী রংপুরের সবচেয়ে আপডেট সংবাদ দেশ ও আন্তজার্তিক নিউজ প্রকাশে বাধ্য থাকিবে। রংপুরের সব রকমের নিউজ পেতে রংপুর ডেইলী ভিজিট করুন