কারখানা চালুর ঘোষণায় ঢাকার পথে মানুষের স্রোত

হাফ পাস: ‘ঢাকার বাইরের শিক্ষার্থীরা কি ধনী’

শিল্প-কারখানা চালুর ষোষণায় কর্মস্থলে ফিরত মানুষের চাপ বেড়েছে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে। প্রতিটি ফেরিতে দেখে গেছে ঢাকামুখী মানুষের উপচে পড়া ভীড়। ফেরিতে গাদাগাদি করে গা ঘেষিয়ে দাঁড়িয়ে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ। মানা হচ্ছেনা সামাজিক দূরত্ব।

বাংলাদেশ অভ্যান্তরিন নৌপরিবহন কর্পোরেশন’র (বিআইডব্লিউটিসি) সূত্রে জানা যায়, আগামীকাল (রবিবার) থেকে দেশের গার্মেন্ট ও রাপ্তানি মুখি শিল্প-কারখানা চালু হবে। ঈদের আগে এসব প্রতিষ্ঠানের লোকজন বাড়িতে গিয়েছে পরিবারের সাথে ঈদ করতে। এখন শিল্প-কারখান চালু হওয়ায় কর্মজীবীরা কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে। এ কারনে পাটুরিয়া ঘাটে ফিরতি মানুষের চাপ বেড়েছে। তবে পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে যাত্রীদের ভোগান্তী নেই।

খোঁজ নিযে জানা যায়, শনিবার সকাল থেকে কর্মস্থলে ফিরত মানুষের চাপ বাড়তে থাকে পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে মানুষের চাপ বেড়ে যায় কয়েকগুন। মানুষের উপচে পড়া ভীড়ে ঠিকমত যানবাহন উঠতে পারেনি ফেরিতে। দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া ছেড়ে আসা প্রতিটি ঘেরিতেই ছিল মানুষের চাপ। হাতে গোনা কয়েকটা গাড়ী ছিল ফেরিতে।

মাগুরা বিল্লাল হোসেন জানান, কালকে গার্মেন্ট চালু হবে। এ কারনে সকাল সকাল বাড়ি থেকে রওনা দিয়েছি। যাতে করে ঠিকমত পৌঁছাতে পারি। কিন্তু দৌলতদিয়া ঘাটে এসে মানুষের ভীড়ে পরতে হয়েছে। দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে ফেরি পার হয়েছি।

ফরিদপুরের ভাঙ্গার ফয়সাল হোসেন জানান, সকালে ডিউটিতে যোগ দিতে হবে। সময় মত না গেলে সমস্যা হবে। কারন এমতিইে ঈদের পর থেকে গার্মেন্টস বন্ধ ছিল। অনেক কাজ জমে আছে। এখন যদি ঠিকমত ডিউটিতে যেতে পারি মালিক কি করবে বলতে পারি না। তাই তো আগেই রওনা দিলাম।

রাজবাড়ীর কামরুল হাসান জানান, ভাই কাল থেকে অফিস খুলবে। সময় মত যাওয়া লাগবে। গার্মেন্টেসের চাকরি খুব ঝামেলার। যে ভাবেই হোক সময় মত ডিউটিতে যোগ দিতে হবে। কোন কারনে যদি চাকরিটা যদি যায়। না খেয়ে মরতে হবে। তাই তো ভাইরাসের মধ্যেও ঝুঁকি নিয়ে যাইতেছি।

বিআইডব্লিউটিসি’র আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান জানান, শনিবার সকাল থেকে কর্মস্থলে ফিরতে মানুষের চাপ বেড়েছে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে চাপ আরও বাড়ছে। দৌলতদিয়া থেকে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরিতেই ছিল মানুষের উপচে পড়া ভীড়। ফেরি পাটুরিয়ায় পৌঁছানো মাত্রই মানুষে নেমেই দৌড়ে গাড়ীতে উঠছে।

তিনি আরও বলেন, ছোট-বড় ১৬টি ফেরির মধ্যে ৮টি ফেরি পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। তবে পদ্মায় পানি বাড়ায় ফেরি পারাপারে সময় বেশি লাগছে।

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *