করোনার উৎস ‘কখনোই জানবে না’ পৃথিবী

রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ২৪ ঘন্টায় ১৫ জন মারা যায়রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ২৪ ঘন্টায় ১৫ জন মারা যায়

নভেল করোনাভাইরাস ঠিক কোন প্রাণীর মাধ্যমে প্রথমে মানুষের শরীরে প্রবেশ করেছে, সে বিষয়ে পৃথিবী কোনোদিন সঠিক তথ্য নাও পেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সিঙ্গাপুরের শীর্ষস্থানীয় ভাইরাস বিশেষজ্ঞ।

লিনফা ওয়াং নামের এই বিজ্ঞানী মূলত বাদুড় নিয়ে গবেষণা করেন। ২০০২ সালে প্রথম ছড়িয়ে পড়া সার্স ভাইরাসের সন্ধানে তিনি যুক্ত ছিলেন। এবারও তার সহকর্মীদের নিয়ে কভিড-১৯ রোগের আসল উৎস খুঁজছেন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। সেখানকার একটি মাংসের বাজার থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে বলে দাবি চীনের। কিন্তু মার্কিন গবেষকেরা মনে করেন, ওই বাজারের পাশে চীনের গোপন একটি পরীক্ষাগার থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে। এই ভাইরাস পরীক্ষাগারে তৈরি বলেও অনুমান তাদের।

এরপর তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মহামারীর জন্য চীনকে দায়ী করতে থাকেন। তিনি তদন্ত করতে চাওয়ার কথাও বলেন।

পৃথিবীতে যুগে-যুগে নতুন যত রোগ এসেছে, তার অধিকাংশ মানুষের মাঝে ছড়িয়েছে বাদুড়ের মাধ্যমে। এই নভেল করোনাভাইরাসও বাদুড় থেকে ছড়িয়ে থাকতে পারে বলে অনেক বিজ্ঞানীর ধারণা।

তবে বেইজিংয়ে বিজ্ঞানীদের একটি প্রতিনিধি সম্মেলনে ওয়াং বলেছেন, ‘এখনো স্পষ্ট কোনো উৎস নেই। বাদুড়কে দায়ী করা যাচ্ছে না। আমরা এমন কোনো বাদুড় পাইনি, যার মাধ্যমে মানুষের শরীরে সার্স ছড়িয়েছে।’

করোনার উৎস খুঁজে পেতে রাজনৈতিক বাধাকেও বড় করে দেখছেন ওয়াং, ‘কেউই তাদের দেশে ভাইরাস খুঁজে পেতে চায় না।’

By নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের অল্প সময়ে গড়ে ওঠা পপুলার অনলাইন পর্টাল রংপুর ডেইলী যেখানে আমরা আমাদের জীবনের সাথে বাস্তবঘনিষ্ট আপডেট সংবাদ সর্বদা পাবলিশ করি। সর্বদা আপডেট পেতে আমাদের পর্টালটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *