এশিয়া মহাদেশে ৫টি দর্শণীয় স্থান

অনেক মানুষই জানে না এশিয়া মহাদেশে এমন বহু স্থান রয়েছে যার সৌন্দর্যের কথা এখনও অজানা। আর তার কাছাকাছি বিভিন্ন দেশের এসব স্থানে ভ্রমণের সুযোগ অনেকেই পাই না। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন ৫টি দর্শণীয় স্থানে কথা.

১. ভিয়েতনাম ,হোই অ্যান
ভিয়েতনাম হোই অ্যান ইউনেস্কো এ শহরকে বিশ্ব ঐতিহ্যের অন্তর্ভুক্ত করেছে । আর ভিয়েতনামের এ প্রাচীন শহরটি ১৫ থেকে ১৯ শতক পর্যন্ত ব্যস্ত এক বন্দর ছিল।। আর এ শহরের বিল্ডিং ও রাস্তার পরিকল্পনায় রয়েছে তৎকালীন সময়ের ব্যাপক বিদেশি প্রভাব এই শহরে। আর এ শহরে রয়েছে বহু প্রাচীন স্থাপনা ।

২.মিয়ানমার , ব্যাগান
মিয়ানমার ব্যাগান প্রাচীন আমলের প্যাগোডা, মন্দির ইত্যাদি দেখে অনুরূপ ধারনা জন্মাতে পারে আপনার মনেও । যে পেরুর মাচু পিচুর প্রাচীন স্থাপনা দেখে যাদের মনে হয়, এসব স্থাপনা পৃথিবীর নয় বরং পৃথিবীর বাইরে থেকে আসা কারো তৈরি, তারা মিয়ানমারের এ স্থানটিও ঘুরে যেতে পারেন।

৩. থাইল্যান্ড, কোহ মুক
এটি থাইল্যান্ডের ট্র্যাং প্রভিন্সের অন্তর্গত একটি দ্বীপ ।আক্ষরিক অর্থে এ নামের অনুবাদ হলো ‘মুক্তা দ্বীপ । আর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জনবহুল সমুদ্রসৈকতে গিয়ে ভিড়ের চাপে যারা বিরক্ত হয়েছেন, তাদের উপযুক্ত একটি স্থান হলো কোহ মুক।

৪ ফিলিপাইন্স. ব্যাটানস
ফিলিপাইন্স. ব্যাটানস এ প্রদেশটি ১০টি দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত । আর এটি ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলা থেকে উত্তরে অবস্থিত । আর এ দ্বীপগুলো অনেকটা নিউজিল্যান্ডের মতো। তাইওয়ানের কাছে অবস্থিত এ দ্বীপগুলো।এ স্থানে যাওয়া যায় ম্যানিলা থেকে সহজেই ।দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের নানা স্মৃতি এ দ্বীপগুলোতে রয়েছে অনুপম পাহাড়-পর্বত, সমুদ্রসৈকত ও পুরনো চার্চ ।

৫ জাপান. নারা
আর জাপানের টোকিও, ওসাকা কিংবা কিয়োটোর কথা যারা জানেন তারা হয়তো ভাবতেও পারবেন না, জাপানে লুকিয়ে আছে কত অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। আর নারাতে আপনি পাবেন প্রাচীন বুদ্ধমন্দির, অসাধারণ বাগান ও কাঠের বাড়ির সমাহার।

Leave a Comment