Self Breast Examination

Self Breast Examination | নিজের স্তন পরীক্ষার পদ্ধতি

Self Breast Examination | নিজের স্তন পরীক্ষার পদ্ধতি বাংলাদেশসহ বিশ্বের মহিলাদের মধ্যে স্তন ক্যান্সার প্রথম সাধারণ ক্যান্সার। বিশ্বে প্রতি ৪ জন ক্যান্সার রোগীর মধ্যে ১ জন এই ক্যান্সারে আক্রান্ত। যাইহোক, আশা করা যায় যে প্রাথমিক রোগ নির্ণয় এবং প্রয়োজনীয় চিকিত্সা সম্ভব হলে, প্রায় 99% ক্ষেত্রে এই রোগটি নিরাময় করা যেতে পারে, যা উন্নত পর্যায়ের রোগীদের ক্ষেত্রে 26%-এ নেমে আসে।

 

Self Breast Examination

মানবদেহের সকল ক্যান্সার প্রাথমিক পর্যায়ে নির্ণয় করা কঠিন হলেও স্তন ক্যান্সার প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। শুধু প্রয়োজন সঠিক ধারণা এবং সচেতনতা। আপনি নিয়মিত স্তন পরীক্ষার (BSE) মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায়ে রোগ নির্ণয় করতে পারেন।

স্তন স্ব-পরীক্ষা

নিজের স্তন পরীক্ষা করার পদ্ধতিকে স্তন স্ব-পরীক্ষা বলা হয়।

কোন বয়স থেকে BSE করা উচিত?

20 এবং তার বেশি বয়সী সকল মহিলার নিয়মিত BSE প্রয়োজন।

BSE কখন করা উচিত?

সাধারণত, মাসিক বন্ধ হওয়ার পর সপ্তাহে মাসের একটি নির্দিষ্ট দিনে BSE করা উচিত। যাদের মাসিক বন্ধ হয়ে গেছে বা গর্ভাবস্থায় তারা একইভাবে মাসের একটি নির্দিষ্ট দিনে BSE করা যেতে পারে। স্তন ক্যান্সার সবচেয়ে সাধারণ ধরনের ক্যান্সারের একটি। স্তন ক্যান্সার সনাক্ত করার প্রথম উপায়গুলির মধ্যে একটি হল নিয়মিত স্তন স্ব-পরীক্ষা। স্তন ক্যান্সারের প্রাথমিক সনাক্তকরণ এবং চিকিত্সার জন্য স্তন স্ব-পরীক্ষা গুরুত্বপূর্ণ, যা শেষ পর্যন্ত চিকিত্সা এবং নিরাময়ে ইতিবাচক ফলাফলের দিকে নিয়ে যাবে।

BSE কখন করা উচিত
BSE করার সময় নিম্নলিখিত পরিবর্তনগুলি লক্ষ্য করুন

  • স্তন বা বগলে পুরু ভর
  • স্তনের ত্বকে পরিবর্তন
  • ইন্ডেন্টেশন
  • ক্ষয়
  • লালভাব বা তাপ
  • কমলার খোসা চামড়া
  • গড়াগড়ি বা ডিম্পলিং
  • আচমকা
  • ফোলা শিরা (ক্রমবর্ধমান শিরা)
  • স্তনবৃন্ত পরিবর্তন
  • প্রত্যাহার করা স্তনবৃন্ত
  • অকারণে স্তনবৃন্ত থেকে তরল বা নতুন তরল বের হওয়া
  • আকৃতি/আকারে অস্বাভাবিক পরিবর্তন
  • স্তনের ভিতরে অদৃশ্য পিণ্ড অনুভব করা

স্তন ক্যান্সারের লক্ষণ

স্তন ক্যান্সারের লক্ষণ কোন অংশ পরীক্ষা করা উচিত? একবারে সমস্ত স্তন ক্যান্সার সনাক্ত করার জন্য একটি একক পরীক্ষা যথেষ্ট নাও হতে পারে। স্তন ক্যান্সারের লক্ষণ তবে অন্যান্য স্ক্রীনিং পদ্ধতির সাথে মিলিত একটি নিবেদিত স্তন স্ব-পরীক্ষা কাজটি করতে পারে।

 

কিভাবে BSE করবেন

মনে রাখবেন, বিএসই করার সময় ছবিতে নির্দেশিত এই 3টি আঙুলের চিহ্নিত অংশগুলির মাধ্যমে আপনার স্তনের অস্বাভাবিকতা নির্ণয় করা গুরুত্বপূর্ণ।

বিএসই পদক্ষেপ

ধাপ 1: বিজ্ঞপ্তি

Self Breast Examination

স্তনের স্বাভাবিক অবস্থানে কোনো পরিবর্তন আছে কিনা লক্ষ্য করুন এবং উল্লেখিত ধাপ অনুযায়ী বিভিন্ন অবস্থানে আকার ও আকৃতির পরিবর্তন লক্ষ্য করুন।

1. আপনার পোঁদ উপর আপনার হাত রাখুন

2. উভয় হাত মাথার উপরে তুলুন

3. উভয় হাত কোমরের বিপরীতে সামান্য চেপে সামনের দিকে ঝুঁকে বুকের পেশীগুলিকে শক্ত করুন।

4. কোন তরল নির্গত হচ্ছে কিনা দেখতে স্তনের বোঁটা আলতো করে টিপুন

 

ধাপ 2: স্পর্শের মাধ্যমে অনুভব করুন

1. শুয়ে পড়ুন, আপনার কাঁধের নীচে একটি বালিশ রাখুন এবং হাতের 2য়, 3য় এবং 4র্থ আঙ্গুল দিয়ে আলতোভাবে স্তনের প্রতিটি অংশ অনুভব করুন, তারপরে আলতোভাবে, তারপরে মাঝারিভাবে এবং তারপরে কিছুটা শক্ত চাপ দিয়ে।

2. একটি বৃত্তাকার গতিতে স্তনের বাইরের প্রান্ত থেকে ঘড়ির কাঁটার দিকে বা স্তনের বাইরের প্রান্ত থেকে ভিতরের স্তনবৃন্তের দিকে এবং স্তনবৃন্ত থেকে আবার বাইরের প্রান্তে একটি লাইন উপরে এবং নীচে বা অনুভব করুন

নিম্নলিখিত 3 উপায়ে BSE সম্পূর্ণ করুন

স্তন ক্যান্সার সনাক্ত করার 3 টি উপায়

মনে রাখবেন স্তনের কোনো পরিবর্তনই ক্যান্সার নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে চাকা/পিন স্বাভাবিক থাকে। তবুও, স্তন স্ব-পরীক্ষা স্তন ক্যান্সার সনাক্তকরণ এবং প্রতিরোধের জন্য একটি যুক্তিসঙ্গত পরিমাপ হিসাবে দাঁড়িয়েছে। রোগ নির্ণয় এবং চিকিত্সা আরও কার্যকর হয় যখন স্ব-পরীক্ষার রুটিন অনুসরণ করে একজন ডাক্তার, ম্যামোগ্রাফি বা, আল্ট্রাসাউন্ড বা কিছু ক্ষেত্রে এমআরআই দ্বারা নিয়মিত শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। স্তন স্ব-পরীক্ষা ক্যান্সার শনাক্ত করার জন্য একটি সুবিধাজনক, সাশ্রয়ী মূল্যের স্ক্রীনিং টুল যা নিয়মিত অনুশীলন করা যেতে পারে। তাই এই পদক্ষেপটি ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে এবং বেঁচে থাকার হার বাড়াতে একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে ওঠে।

Self Breast Examination
সাধারণ চাকা বা সৌম্য

1 | চাকা একটি নির্দিষ্ট জায়গায় বিদ্যমান এবং ছড়িয়ে পড়ে না

2. 90% ব্যথাহীন

3. চাকার প্রান্ত সমান বা নিয়মিত

4. চাকা চামড়ার সাথে সংযোগ অনুপস্থিত

5. স্তনবৃন্ত থেকে হলুদ বা সবুজ তরল নির্গত হয়, রক্ত ​​নয়

ম্যালিগন্যান্ট চাকা বা ম্যালিগন্যান্ট

1. চাকাটি আশেপাশের টিস্যুতে ছড়িয়ে পড়ার প্রবণতা বেশি

2. সাধারণত বেদনাদায়ক

3. চাকার প্রান্তগুলি অনিয়মিত

4. চাকা চামড়ার সাথে একটি অ্যাসোসিয়েশন আছে

5. স্তনবৃন্ত থেকে রক্ত ​​/ রক্তের তরল নির্গত হয়

যদি এই পরিবর্তনগুলির কোনটি ঘটে তবে অবিলম্বে চিকিৎসা সহায়তা নিন এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা নিন। বছরের পর বছর ধরে, ক্যান্সারের প্রাথমিক সনাক্তকরণে স্তনের স্ব-পরীক্ষার গুরুত্ব এবং কীভাবে এই সহজ পদক্ষেপটি বেঁচে থাকার হার বাড়াতে পারে সে সম্পর্কে অনেক বিতর্ক হয়েছে। কিন্তু তা ঘিরে রয়েছে নানা শঙ্কা।

Self Breast Examination

উদাহরণস্বরূপ, চীন এবং রাশিয়ায় পরিচালিত 400,000 মহিলার উপর 2008 সালের একটি সমীক্ষা জানিয়েছে যে স্তন স্ব-পরীক্ষা সনাক্তকরণ এবং বেঁচে থাকার হারে উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলেনি। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে যে একটি স্ব-স্তন পরীক্ষা এমনকি একটি অপ্রয়োজনীয় বায়োপসি শুরু করে ক্ষতির কারণ হতে পারে।

কিছু উপদেশ

ব্যায়াম নিয়মিত ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। শিশুকে নিয়মিত বুকের দুধ খাওয়ালে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে।
আপনার যদি পারিবারিক ইতিহাস থাকে, তাহলে আগে থেকেই সচেতন হন এবং BSE-এর পাশাপাশি চিকিৎসা সহায়তা নিন।
একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য খান এবং অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন।

স্তন স্ব-পরীক্ষাকে আপনার রুটিনের একটি নিয়মিত অংশ করুন, কারণ আপনি, আমি এবং আমাদের সচেতনতা সঠিক সময়ে স্তন ক্যান্সার নির্ণয় করে মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে পারে।

রংপুর ডেইলী রংপুরের সবচেয়ে আপডেট সংবাদ দেশ ও আন্তজার্তিক নিউজ প্রকাশে বাধ্য থাকিবে। রংপুরের সব রকমের নিউজ পেতে রংপুর ডেইলী ভিজিট করুন