নায়িকা মৌসুমী

নায়িকা মৌসুমী? কি ঘটেছে ওমর সানী, মৌসুমী ও জায়েদের মধ্যে?

নায়িকা মৌসুমী ঢাকাই চলচ্চিত্রে এক উজ্জ্বল নাম। তিনি একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র। বলছি আরিফা পারভীন জামান মৌসুমীর কথা। দর্শকের কাছে তিনি মৌসুমী নামেই পরিচিত। বড় পর্দায় তার যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৩ সালে। প্রয়াত নায়ক সালমান শাহের বিপরীতে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ সিনেমার মাধ্যমে শুরু হয়। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। 30 বছর সফলভাবে কেটে গেছে। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অনেক সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি।

 

আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী

আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী বহুমাত্রিক চরিত্রে রূপালি পর্দায় আলো ছড়িয়েছেন তিনি। পেয়েছেন একাধিক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। ঢাকাই সিনেমার প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্য উচ্চতায়। তিনি বর্তমানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী। তার মা তার ছোট বোন ইরিন জামানের সাথে আটলান্টায় থাকেন।

আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী

মায়ের শরীর ভালো যাচ্ছে না। সে খবর শুনে মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যান তিনি আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী। তিনি দেশে ফিরে শিগগিরই আবার কাজ শুরু করবেন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে মৌসুমীর বিপরীতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেছেন ওমর সানি, ইলিয়াস কাঞ্চন, বাপ্পারাজ, জাহিদ হাসান, অমিত হাসান, রুবেল, মান্না, আমিন খান, ফেরদৌস, রিয়াজ, আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী, শাকিল খান ও শাকিব খানসহ ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকারা।

 

চলচ্চিত্রে মৌসুমীর অবদান

চলচ্চিত্রে মৌসুমীর অবদান চলচ্চিত্রের পাশাপাশি তিনি টিভি নাটক ও বিজ্ঞাপনেও সাফল্য পেয়েছেন। পরিচালক হিসেবেও অভিষেক হয়েছে মৌসুমীর। নির্মাণেও চলচ্চিত্রে মৌসুমীর অবদান নিজের নামের সুবাস ছড়িয়েছেন। তিনি 2001 সালে তার মৌসুমী চলচ্চিত্র ‘মেঘলা আকাশ’-এর জন্য প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। তিনি 2013 সালে ‘দেবদাস’ এবং 2014 সালে ‘তারকান্ত’-এর জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর চলচ্চিত্রে মৌসুমীর অবদান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছিলেন।

 

অভিনয়ে মৌসুমীর অবদান

অভিনয়ে মৌসুমীর অবদান অভিনয়ের বাইরে তিনি মৌসুমী ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন ও ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত। মৌসুমী বলেন, সময় কত দ্রুত চলে যায়। অনেক বছর কেটে গেছে। আমি প্রযোজক, পরিচালক, সাংবাদিকদের কাছে অনেক কৃতজ্ঞ অভিনয়ে মৌসুমীর অবদান। আমার বাবা, মা, দুই বোন স্নিগ্ধা, ইরিন সব সময় আমার পাশে থেকেছেন। আমার স্বামী ওমর সানি আমার ভালোবাসায়, সুখে-দুঃখে পাশে আছেন।

অভিনয়ে মৌসুমীর অবদান

তার নির্দেশনা ও অভিভাবকত্বে আমাদের পরিবার আজ খুশি অভিনয়ে মৌসুমীর অবদান। দর্শকদের অগাধ ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা ছিল। তিনি আরও জানান, এই মুহূর্তে তিনি দেশে ফিরছেন না। মায়ের সঙ্গে আরও কিছু সময় কাটিয়ে দেশে ফিরতে চান তিনি অভিনয়ে মৌসুমীর অবদান। দর্শকের ভালোবাসায় তিন দশক পেরিয়েছেন মৌসুমী। এজন্য প্রিয়দর্শিনী মৌসুমীকে বার্তা ২৪.কম এর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

 

নায়িকা মৌসুমী

নায়িকা মৌসুমী মতে, প্রযোজনা সংস্থা আনন্দমেলা সিনেমা লিমিটেড সোহানুর রহমান সোহানের কাছে হিন্দি ‘সনম বেওয়াফা’, ‘দিল’ এবং ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তক’-এর কপিরাইট নিয়ে আসে যেকোন একটির রিমেক করার জন্য নায়িকা মৌসুমী। উপযুক্ত নায়ক-নায়িকা না পেয়ে সম্পূর্ণ নতুন মুখ নিয়ে ছবি করার সিদ্ধান্ত নেন তারা।

তিনি নায়িকা হিসেবে নায়িকা মৌসুমীকে বেছে নেন। তৌকির আহমেদ এবং পরে আদিল হোসেন নোবেলকে নায়ক হিসেবে প্রস্তাব করলে তারা তা প্রত্যাখ্যান করেন। এরপর নায়ক আলমগীরের সাবেক স্ত্রী খোশুনুর আলমগীর ‘ইমন’ নামে একটি ছেলের সন্ধান পান। পরিচালক তাকে প্রথম দেখাতেই পছন্দ করেন এবং ‘সনম বেওয়াফা’-এর রিমেক করার পরামর্শ দেন নায়িকা মৌসুমী।

 

মৌসুমীকে নায়িকা

মৌসুমীকে নায়িকা কিন্তু ইমন জোর দিয়েছিলেন ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তক’। তিনি এই ছবিটি 28 বার দেখেছেন। শেষ পর্যন্ত পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেন এবং ইমনের নাম পরিবর্তন করে সালমান শাহ রাখা হয়। এ সিনেমায় মৌসুমীকে নায়িকা হিসেবে নেওয়ার প্রস্তাব দেন পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার। এরপর কয়েক দফা বৈঠকের পর সব চূড়ান্ত হয়।

‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন সোহানুর রহমান সোহান এবং সংলাপ লিখেছেন আশীষ কুমার লো। প্রযোজক সুকুমার রঞ্জন ঘোষের আনন্দমেলা সিনেমা লিমিটেড প্রযোজনা করেছে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। ছবিতে সালমান ও মৌসুমী ছাড়াও অভিনয় করেছেন রাজীব, আহমেদ শরীফ, আবুল হায়াত, খালেদা আক্তার কল্পনা, মিঠু, ডন, জাহানারা আহমেদ, অমল বোসসহ আরও অনেকে। ছবিটি 1993 সালের ঈদ-উল-ফিতরে মুক্তি পায়।

 

কি ঘটেছে ওমর সানী, মৌসুমী ও জায়েদের মধ্যে?

ডিপজলের ছেলের বিয়েতে থাপ্পড় ও পিস্তল মারার ঘটনা এখন পরিবারের অন্দরমহলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত শুক্রবার থেকে বিনোদন অঙ্গনে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে সানি-মৌসুমী-জায়েদ ইস্যু। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। সেই সঙ্গে বেরিয়ে আসছে অনেক জানা-অজানা তথ্য। এ ঘটনা নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন ওমর সানি-মৌসুমী দম্পতির ছেলে ফারদিন এহসান স্বাধীন।

কি ঘটেছে ওমর সানী, মৌসুমী ও জায়েদের মধ্যে

তার মা (মৌসুমী) তার বাবার (ওমর সানির) বিরুদ্ধে কথা বলেছেন কিনা জানতে চাইলে ফারদিন গণমাধ্যমকে বলেন, “আমি আমার মায়ের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেছি। মা বললেন, ‘দেখ বাবা, আমি রাগ করে বলেছি। তোর বাবার উপর একটু রাগ করেছিলাম।আমি তাই বলেছি।কিন্তু আমি মিথ্যে বলছি সানি সরাসরি বলেননি।যতই বলেছি রাগ করেই বললাম।’

 

মৌসুমীর ছেলের মতে কি ঘটেছে মৌসুমী ও জায়েদের মধ্যে?

আপনাকে ধন্যবাদ, আপনার ভাইয়ের জন্য কোন অনুশোচনা নেই: জায়েদ খান আপনাকে ধন্যবাদ, আপনার ভাইয়ের জন্য কোন অনুশোচনা নেই: জায়েদ খান। ফারদিন বলেন, ‘আমি আমার মাকে (মৌসুমী) জিজ্ঞেস করেছি। আমি বললাম মা তুমি ঐ অডিও বাইটের শুরুতে আর শেষে কি বললে? জানতে চাইলাম, একটা বিশ্রী পরিবেশ তৈরি হয়েছে। (কারণ, পরিস্থিতি কুৎসিত নয়।) এটি ঘরোয়াভাবে সমাধান করতে হবে। এর জন্য মিডিয়ার কাছে যেতে হবে না। চলচ্চিত্রে সিনিয়ররা আছেন যারা সমস্যার সমাধান করতে পারেন। ‘

রোববার (১২ জুন) জায়েদ খানের বিরুদ্ধে শিল্পী সমিতিতে ওমর সানি তার সুখী সংসার ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ করেন। রোববার সন্ধ্যায় নিপুণ আক্তার সাংবাদিকদের জানান, মৌসুমীর কাছ থেকে ওমর সানির অভিযোগ পেয়েছেন তিনি।

 

কি ঘটেছে মৌসুমী ও জায়েদের মধ্যে?

কিন্তু ২৪ ঘণ্টারও কম সময় পর ওমর সানির বিপরীত বক্তব্য দেন মৌসুমী। বলেছেন, অকারণে আমার প্রসঙ্গ টানা হয়েছে। জায়েদের সঙ্গে একজন শিল্পীর সম্পর্ক একই রকম। আমি জায়েদকে অনেক ভালোবাসি, সে আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে কাজের সম্পর্ক যতদূর সম্ভব, এটি একটি খুব ভাল সম্পর্ক। আমাকে অসম্মান করার প্রশ্নই আসে না। সে খুব ভালো ছেলে। সে আমাকে কখনো অসম্মান করেনি।

নায়িকা মৌসুমী

বিরক্তির সুরে মৌসুমী আরও বলেন, বারবার কেন এই প্রশ্ন আসছে, সে আমাকে বিরক্ত করছে, জ্বালাতন করছে! আমি এই জিনিস বুঝতে পারছি না. যদিও এটা আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। পারিবারিকভাবে আমাদের সেই সমস্যাটি সমাধান করতে হবে।

 

অভিনেত্রী মৌসুমী

অভিনেত্রী মৌসুমী জায়েদ খানের দোষ নেই উল্লেখ করে এই অভিনেত্রী বলেন, অন্যরা আমাকে ছোট করে খুশি হয় কেন? ওমর সানি ভাই, যাকে আমরা এত সম্মান করি, কেন এত উপভোগ করছেন বুঝতে পারছি না! আপনার কোন সমস্যা হলে অভিনেত্রী মৌসুমী , আমার সাথে যোগাযোগ করুন. এটাই আমি আশা করি।

অভিনেত্রী মৌসুমী আর সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সাংবাদিক ভাইরা আসলে কোনো খবর পেলেই কোনো যাচাই-বাছাই ছাড়াই তা দ্রুত প্রকাশের চেষ্টা করেন। এটা ঠিক না। আমি আমার প্রসঙ্গ পরিষ্কার করব, তাই না? তিনি (ওমর সানী) আসলে একতরফা বলেছেন। কিন্তু আমি তা বলেছি কিনা, অভিযোগ করেছি কিনা; এটা জানা খুবই জরুরি ছিল।

রংপুর ডেইলী রংপুরের সবচেয়ে আপডেট সংবাদ দেশ ও আন্তজার্তিক নিউজ প্রকাশে বাধ্য থাকিবে। রংপুরের সব রকমের নিউজ পেতে রংপুর ডেইলী ভিজিট করুন