আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী হতে যে শর্ত দিলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক

নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে প্রধান নির্বাহী নিয়োগ পেতে ২০ বছরের অভিজ্ঞতা লাগবে। সোমবার (২০ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে।

সার্কুলারে বলা হয়, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আর্থিক ভিত্তি সুদৃঢ়করণ, আমানতকারীদের স্বার্থ সুরক্ষাসহ সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বচ্ছতার সঙ্গে দক্ষ অভিজ্ঞ ও উপযুক্ত প্রধান নির্বাহী নিযুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করতে অভিজ্ঞতা, উপযুক্ততা ও নির্বাচন প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আনতে বাংলাদেশ ব্যাংক সার্কুলার জারি করলো।

অভিজ্ঞতা ও উপযুক্ততা

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে নিযুক্তির ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সক্রিয় কর্মকর্তা হিসেবে কমপক্ষে ২০ বছরের এবং ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর অব্যাবহিত পূর্ববর্তী পদে কমপক্ষে ২ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা পদে যোগ্য ব্যক্তিদের প্রতিদ্বন্দিতা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে বহুল প্রচারিত দুইটি বাংলা ও দুইটি ইংরেজি পত্রিকায় এবং প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে হবে।

এছাড়া যোগ্য প্রার্থীকে মূল্যায়নের জন্য প্রতিষ্ঠান পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদিত একটি মূল্যায়ন প্রক্রিয়া থাকতে হবে।

প্রধান নির্বাহীকে কোনও স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে ন্যূনতম স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী হতে হবে। অর্থনীতি, ব্যাংকিং ও ফিন্যান্স কিংবা ব্যবসায় প্রশাসন বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি থাকলে তা অতিরিক্ত যোগ্যতা হিসেবে বিবেচিত হবে।

কোনও কোম্পানির চেয়ারম্যান/পরিচালক/কর্মকর্তা থাকাকালীন স্বীয় পদ হতে বরখাস্তকৃত ব্যক্তি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী হিসেবে যোগ্য বিবেচিত হবেন না।

ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কোনও পরিচালক বা ওই আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ব্যবসায়িক স্বার্থ রয়েছে, এমন ব্যক্তি প্রধান নির্বাহী পদে নিয়োগের জন্য যোগ্য বিবেচিত হবেন না।

ব্যাংকের সার্কুলার উল্লেখ করা হয়, প্রধান নির্বাহী পদে নিযুক্তির ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি সম্পর্কে এই মর্মে নিশ্চিত হতে হবে যে, তিনি কোনও দেওয়ানি বা ফৌজদারি আদালতে দণ্ডিত হননি। তিনি কোনও নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থার বিধিমালা, প্রবিধান বা নিয়মাচার লঙ্ঘনের দায়ে দণ্ডিত হননি। তিনি কোনও কোম্পানি/প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন/লাইসেন্স বাতিল বা অবসায়নের জন্য প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে দায়ী নন।

স্বচ্ছতা

নিয়োগ পাওয়া ব্যক্তি ইতোপূর্বে নিজ পেশায় দায়িত্ব পালনকালে কোনোরূপ অবৈধ কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন না। তিনি পাওনাদারের পাওনা পরিশোধ বন্ধ করেননি বা পাওনাদারের সঙ্গে আপস রফার মাধ্যমে পাওনা পরিশোধ হতে অব্যাহতি লাভ করেননি। তিনি ঋণ বা কর খেলাপি নন। তিনি আদালতে দেউলিয়া ঘোষিত হননি।

বয়স সীমা

কোনও ব্যক্তির বয়স ৬৫ বছর অতিক্রান্ত হলে তিনি কোনও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী পদে অধিষ্ঠিত থাকতে পারবেন না। অর্থাৎ প্রধান নির্বাহীর সক্রিয় কার্যকাল হবে সর্বোচ্চ ৬৫ বছর।

নিয়োগের মেয়াদ

প্রধান নির্বাহীর নিয়োগের মেয়াদ হবে অন্যূন ৩ (তিন) বছর।

পুনর্নিয়োগ

চলতি মেয়াদ শেষে প্রধান নির্বাহীকে পুনর্নিয়োগ দেওয়া যাবে। পুনর্নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রধান নির্বাহী হিসেবে কর্মরত মেয়াদে প্রতিষ্ঠানটির আর্থিক কার্যক্রমের অগ্রগতি (ক্যামেলস রেটিং, বিরূপ শ্রেণিকৃত ঋণ হার, মুনাফা ইত্যাদি), নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থার নির্দেশনা লঙ্ঘনের দায়ে তার ওপর আরোপিত দণ্ড (যদি থাকে) ইত্যাদি বিষয়গুলো বিবেচনায় আনতে হবে। পুনর্নিয়োগের ক্ষেত্রে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদনক্রমে পর্ষদ চেয়ারম্যানের সই করা একটি মূল্যায়ন প্রতিবেদন বাংলাদেশ ব্যাংকে দাখিল করতে হবে।

প্রধান নির্বাহী নিয়োগ বা পুনর্নিয়োগের আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের পূর্বানুমোদন গ্রহণ করতে হবে। এ নিয়োগের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে। এরূপ অনুমোদন গ্রহণের লক্ষ্যে পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান সই করা প্রস্তাবের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পূর্ণ জীবন বৃত্তান্ত, নিয়োগের শর্তাবলি ছাড়াও প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ বেতন-ভাতা/অন্যান্য সুবিধাদি এবং এ বিষয়ে পর্ষদের অনুমোদনের অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংকে দাখিল করতে হবে।

এই পদের জন্য মনোনীত ব্যক্তির কাছ থেকে নির্দিষ্ট ঘোষণাপত্র বাংলাদেশ ব্যাংকে দাখিল করতে হবে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো প্রধান নির্বাহী নিয়োগ/পুনর্নিয়োগের আবেদনপত্র প্রধান নির্বাহীর চলতি মেয়াদ শেষ হওয়ার কমপক্ষে এক মাস আগে বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠাতে হবে।

নিয়োগ বাতিল

প্রতিষ্ঠান তথা জনস্বার্থে বাংলাদেশ ব্যাংক যে কোনও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর নিয়োগ বাতিল করতে পারবে।

অপসারণ ও পদত্যাগ

বাংলাদেশ ব্যাংকের পূর্বানুমোদন ব্যতীত প্রধান নির্বাহীকে তার পদ হতে বরখাস্ত, অব্যাহতি প্রদান বা অপসারণ করা যাবে না। তবে নিয়োগ চুক্তির মেয়াদপূর্তির আগে প্রধান নির্বাহী চুক্তি বাতিল করতে চাইলে বা স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে চাইলে, চুক্তি বাতিল/পদত্যাগের প্রকৃত কারণ উল্লেখপূর্বক কমপক্ষে এক মাস আগে এ সংক্রান্ত নোটিশ প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যানের কাছে দাখিল করবেন এবং একই সময়ে সেই নোটিশের অনুলিপি বাংলাদেশ ব্যাংকেও পাঠাবেন।

রংপুর ডেইলী রংপুরের সবচেয়ে আপডেট সংবাদ দেশ ও আন্তজার্তিক নিউজ প্রকাশে বাধ্য থাকিবে। রংপুরের সব রকমের নিউজ পেতে রংপুর ডেইলী ভিজিট করুন